ম্যানইউ ছাড়ছেন রোনালদো!

সবাইকে অবাক করে গত আগস্টে য়ুভেন্তাস ছেড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে দ্বিতীয়বারের মতো যোগ দেন পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। দীর্ঘ ১২ বছর পর ম্যানইউতে যোগ দেওয়ার পর থেকে নিজেকে খুঁজে পাচ্ছেন না সিআর সেভেন। তার অফফর্মের কারণে ইউনাইটেডে রোনালদোর ভবিষ্যৎ নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা।

0 7,023

দ্বিতীয় পর্বে ম্যানইউতে যোগ দেওয়ার পর দারুণ ছন্দে ছিলেন রোনালদো। তবে কয়েক মাস জেতেই ফিকে পড়ে গেছেন তিনি। গোল তো পাচ্ছেনই না, তার ওপর দলেও নিয়মিত নন তিনি। গেল ম্যাচে ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে তো বেঞ্চেও ছিলেন না তিনি। এমন অবস্থায় তাকে এই মৌসুম পর অনেকেই ম্যানইউর দলে দেখছেন না।

এদিকে ডার্বিতে শতভাগ ফিট থাকার ফলের দলে সুযোগ মেলেনি রোনালদোর। তবে ম্যাচের আগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কোচ রাগনিক জানিয়েছিলেন কোমরের নিচের অংশের সমস্যা থাকার কারণে ম্যান সিটির বিপক্ষে রোনালদোকে রাখা হচ্ছে না।

রাগনিক বলেন, ‘আমার ডাক্তার শুক্রবার সকালে এসে আমাকে জানায় রোনালদো কোমরের নিচে কিছুটা ব্যথা অনুভব করছে, আর সেই ব্যথা তার শনিবারও ছিল। তাই তাকে দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।’

এদিকে সোমবারের (৭ মার্চ) জন্য ছুটি দেওয়া হয়েছিল রোনালদোকে। ধারণা করা হচ্ছিল মঙ্গলবার (৮ মার্চ) দলের সঙ্গে যোগ দেবেন তিনি। কোচ রাফ রাগনিক আগেই সবাইকে বলেছেন, যাদের চোট সমস্যা আছে তারা যেন বিদেশ যাওয়ার বদলে ক্লাবে থেকেই পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শুরু করে।

তবে রোনালদোর বোন কাতিয়া আভেইরো ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্ট করে জানান, ‘রোনালদো ১০০ ভাগ সুস্থ আছে।’ তাহলে কেন তাকে এত বড় ম্যাচে তাকে রাখা হলো না?

এদিকে লিগে ২৮ ম্যাচ খেলে ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পঞ্চন স্থানে আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। আর তাদের চেয়ে তিন ম্যাচ কম খেলে এক পয়েন্ট বেশি নিয়ে টেবিলের চতুর্থ স্থানে আছে আর্সেনাল। যেই রোনালদো য়ুভেন্তাস ছেড়ে ম্যানইউতে যোগ দিয়েছে তাদের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলানোর জন্য, সেই রোনালদোই এখন পারছেন না তাদের টপ ফোরে রাখতে। এটাও একটি কারণ হিসেবে দাঁড়াবে পরবর্তীতে।

এদিকে গুঞ্জন উঠেছে যদি এমবাপ্পে পিএসজি ছাড়ে, তবে রোনালদোকে টানবে ফরাসি ক্লাবটি। তবে গুঞ্জন কতটা সত্য হবে তা সময়ই বলে দেবে। তবে রোনালদোর মন যে ম্যানইউতে বসছেনা তা অনেকেই মানছেন।

এদিকে ম্যানচেস্টার ডার্বিতে ১-৪ গোলের বড় ব্যবধানে হারের পর শুধু রোনালদোর ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তা পড়েনি, তরুণ ফরোয়ার্ড মার্কাস রাশফোর্ডও শুরুর একাদশ থেকে বাদপড়ার বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি। ক্লাবের শেষ ১১ ম্যাচের মধ্যে মাত্র দুটিতে শুরুর একাদশে ছিলেন ইংল্যান্ডের তরুণ এই ফরওয়ার্ড।

Leave A Reply

Your email address will not be published.