ব্যালন ডি’অরটা তারই প্রাপ্য ছিল

0 19,810

২০২১-২২ মৌসুমে যা করেছেন, তার জন্য ব্যালন ডি’অরটা তারই প্রাপ্য ছিল। এমনকি রিয়াল মাদ্রিদ তারকা করিম বেনজেমার প্রতিদ্বন্দ্বীতায় ধারে-কাছেও কেউ ছিল না। যে কারণে সোমবার রাতে প্যারিসে এক জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ব্যালন ডি’অরের জন্য নাম ঘোষণা করা হলো করিম বেনজেমারই।

প্যারিসেই গত বছর ব্যালন ডি’অর হাতে তুলে নিয়েছিলেন লিওনেল মেসি। রবার্ট লেওয়ানডস্কি এবং জর্জিনহোকে পেছনে ফেলে এই পুরস্কার জিতেছিলেন তিনি। এবার মেসির শহরে (মেসির বর্তমান ক্লাব পিএসজি এই শহরের) ব্যালন ডি‘অর জিতে নিলেন বেনজেমা। তিনি পেছনে ফেললেন লিভারপুলের (বর্তমানে বায়ার্ন মিউনিখে) সাদিও মানে এবং ম্যানচেস্টার সিটির কেভিন ডি ব্রুইনকে।

প্যারিস যেন রিয়াল মাদ্রিদের জন্য বিজয়ের নগরি। কয়েক মাস আগেই এখান থেকে রিয়াল মাদ্রিদ তাদের ১৪তম চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জয় করে নিয়েছিল।

বেনজেমার ব্যালন ডি’অর গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ। যিনি করিম বেনজেমার সব সময়ের এক নিঃস্বার্থ সমর্থক। ১৪ বছর আগে লিওঁর একটি বাসায় প্রথম বেনজেমার সঙ্গে সাক্ষাৎ ঘটেছিল পেরেজের। যে বাসায় থাকতেন বেনজেমা নিজে।

সব মিলিয়ে ১২বার ব্যালন ডি’অর উঠেছে রিয়াল মাদ্রিদ খেলোয়াড়দের শো-কেসে। যা বার্সেলোনার সমান। এর আগে রিয়ালের যারা ব্যালন ডি’অর জিতেছেন তারা হলেন- আলফ্রেডো ডি স্টেফানো, রেমন্ড কোপা, লুই ফিগো, রোনালদো নাজারিও (ব্রাজিল), ফ্যাবিও ক্যানাভারো, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো এবং লুকা মদ্রিচ।

এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৭টি ব্যালন ডি’অর জিতেছেন লিওনেল মেসি। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো জিতেছেন ৫টি। এবারের ব্যালন ডি’অরে রিয়ালের লুকা মদ্রিচ হয়েছেন ৯ম, ভিনিসিয়ুস জুনিয়র অষ্টম এবং গোলরক্ষক থিবো কুর্তোয়া হয়েছেন সপ্তম।

ম্যানসিটির স্ট্রাইকার আর্লিং হালান্ড হয়েছেন দশম, কিলিয়ান এমবাপে ৬ষ্ঠ এবং মোহাম্মদ সালাহ হয়েছেন পঞ্চম। করিম বেনজেমা এবং লুকা মদ্রিচ এমন দুই ফুটবলার যারা মেসি-রোনালদোর রাজত্বে ভাগ বসিয়েছেন। যে রাজত্ব চলে আসছিল ২০০৮ সাল থেকে।

আইএইচএস/ JN

Leave A Reply

Your email address will not be published.