আগে আসলে আগে পাবেন বিশ্বকাপের টিকিট

আগামী নভেম্বরে কাতারে বসতে যাচ্ছে ক্রীড়া ‍দুনিয়ার সবচেয়ে জাঁকজমকপূর্ণ ইভেন্ট ফিফা বিশ্বকাপ। ৩২ দলের এ মহারণ দেখতে মুখিয়ে আছেন ফুটবল সমর্থকরা।

0 14,789

এদিকে, দুই দফা টিকিট বিক্রি শেষে যাদের মন খারাপ ছিল তাদের জন্য সুখবর দিয়েছে আয়োজক দেশ কাতার। ফের বিক্রি শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপের টিকিট।

ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, প্রথম দুই দফায় ১৮ লাখ টিকিট বিক্রি হয়েছে। বাকি থাকা টিকিট ‘আগে আসলে আগে পাবেন’ ভিত্তিতে আগামী সপ্তাহ থেকে বিক্রি শুরু হবে। বুধবার (২৯ জুন) এ কথা জানিয়েছে তারা। তবে বিক্রির জন্য কতগুলো টিকিট অবশিষ্ট আছে সে বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।

আগামী ৫ জুলাই থেকে অনলাইনে পাওয়া যাবে বিশ্বকাপের টিকিট। দোহার স্থানীয় সময় রাত ১২টা থেকে ১৬ আগস্ট রাত ১২টা পর্যন্ত অনলাইনে টিকিট ক্রয় করা যাবে বলে জানানো হয়েছে।

ফিফা জানায়, নতুন এই টিকিট বিক্রির সময়সূচি নিয়ে গোটা বিশ্বে ব্যাপক আগ্রহের সৃষ্টি হয়েছে। কর্মকর্তাদের ভাষ্যমতে, পৃষ্ঠপোষকদের জন্য বরাদ্ধকৃত টিকিটসহ সর্বমোট ৩০ লাখ টিকিট এখনো অবিক্রিত রয়েছে। সেখান থেকে ১২ লাখ টিকিট বিক্রি হতে পারে।

কাতার বিশ্বকাপের পর্দা উঠবে ২১ নভেম্বর এবং ১৮ ডিসেম্বর আসর সমাপ্ত হবে। মধ্যপ্রাচ্যের প্রথম এই বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে ইতিহাসের প্রথম শীতকালীন বিশ্বকাপ। সাধারণত মে মাসে ক্লাব মৌসুমের খেলা শেষে জুন-জুলাইয়ে বিশ্বকাপ আয়োজন করা হয়। কাতারের গ্রীষ্মকালের উষ্ণ আবহাওয়া থেকে সুরক্ষা পেতেই এবার শীতকালে আয়োজন করা হবে বিশ্বকাপ।

কাতার বিশ্বকাপের ফাইনালের ভেন্যু হিসেবে প্রস্তুত করা হয়েছে দৃষ্টিনন্দন লুসাইল স্টেডিয়াম। ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো বলেছেন, লুসাইল স্টেডিয়ামের ফাইনাল ম্যাচের ৮০ হাজার টিকিটের জন্য আবেদন পড়েছে ৫০ লাখ।

এদিকে, নভেম্বর-ডিসেম্বরে কাতার বিশ্বকাপ দেখতে চাওয়া দর্শক-সমর্থকদের সুখবর দিল আরব আমিরাত ও গালফ ক্যারিয়ারস বিমান কর্তৃপক্ষ। বিশ্বকাপ দেখতে দোহা গমনেচ্ছু দেশ-বিদেশের ভক্ত-সমর্থকদের যাতায়াত সহজ করতে বিমান ভাড়া কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। সেই সঙ্গে বাড়ছে তাদের বহরের ফ্লাইট সংখ্যাও।

বিশ্বকাপের এক মাস অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে কম ভাড়ায় কাতারের রাজধানী দোহায় যেতে পারবে বিশ্বকাপ দেখতে চাওয়া দর্শকরা। ২০ নভেম্বর থেকে দুবাই হতে দোহারের ভাড়া হবে ১৭০০ দিরহামের কিছু বেশি, যা বর্তমানে ২২০০ দিরহামের কাছাকাছি।

আমিরাতভিত্তিক গালফ নিউজ আরও জানিয়েছে, আবুধাবি থেকে বিমানে দোহা যেতে গুনতে হবে ১ হাজার থেকে ৬ হাজার দিরহাম পর্যন্ত। রিয়াদ ও জেদ্দা থেকে ভাড়া হচ্ছে ১৪০০ দিরহামের কাছাকাছি।

এদিকে গালফ ক্যারিয়ারের মধ্যে সবশেষ এয়ারলাইনস হিসেবে বিশ্বকাপের সময় ফ্লাইটসংখ্যা বাড়াচ্ছে এয়ার এরাবিয়া। বিশ্বকাপ চলাকালীন প্রতিদিন শারজা থেকে দোহার মধ্যে ১৪টি শাটল ফ্লাইট পরিচালনা করবে আরব অঞ্চলের এই সাশ্রয়ী এয়ারলাইনস।

বিশ্বকাপ উপলক্ষে ফ্লাইটসংখ্যা বাড়াচ্ছে ইতিহাদ এয়ারওয়েজও। প্রায় আড়াই গুণ বাড়ছে তাদের সাপ্তাহিক ফ্লাইটসংখ্যা। বিশ্বকাপ চলাকালীন আবুধাবি থেকে দোহায়  প্রতি সপ্তাহে ৪২টি ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিশ্বখ্যাত এই এয়ারওয়েজ। বর্তমানে এই রুটে তাদের সাপ্তাহিক ফ্লাইটসংখ্যা ১৮টি। বিশ্বকাপ দেখতে পুরো সময়টায় প্রায় ১২ লাখ বিদেশি দর্শক কাতারে যাবেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.