রোনালদোর ডেপুটি থেকে ‘মাদ্রিদের রাজা’ বেনজেমা

ক্যারিয়ারের সেরা ফর্মে আছেন করিম বেনজেমা। রোনালদোর ছায়ায় মাদ্রিদে চাপা পড়া বেনজেমা রোনালদোর বিদায়ের পর থেকে নিজেকে মেলে ধরতে শুরু করেছিলেন। তবে এই ৩৪ বছর বয়সে এসে বেনজেমা যা করছেন তাতে তার দল রিয়াল মাদ্রিদের কোচ আঞ্চেলত্তি তো বলেই দিলেন, বেনজেমা ওয়াইনের মতো। বয়সের সঙ্গে বাড়ছে তার মান। কাল যেমন চেলসির বিপক্ষে হ্যাটট্রিকে গড়লেন বেশকিছু রেকর্ড।

0 9,707

৩০ পার হলেই ধরা হয় সেরা সময় পেরিয়ে এসেছে সে ফুটবলারের। অলিম্পিক লিঁও থেকে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিয়ে ৩১ বছর বয়স পর্যন্ত বেনজেমা ছিলেন রোনালদো নামের মহীরুহের ছায়ায় চাপা পড়ে। স্ট্রাইকার হওয়া সত্ত্বেও রিয়ালে বেনজেমার প্রধান কাজ ছিল গোল করার বদলে গোলে সহায়তা করা। বেনজেমা সে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে যেন ভুলে গিয়েছিলেন গোল করতেও। ম্যাচের পর ম্যাচ মাদ্রিদের সমর্থকদের দুয়োধ্বনি শুনতে হয়েছে তাকে। তবে হৃদয়ে মাদ্রিদের জন্য ভালোবাসা ছিল লাগামছাড়া। তাই বেশ কিছুব প্রস্তাব পেয়েও রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়েননি।

তবে বেনজেমার প্রশংসা করতে কখনোই কার্পণ্য করেনি তার সহখেলোয়াড় ও কোচরা। তাই একাদশে সুযোগ পেয়েছেন প্রায় সব কোচের দলেই। রোনালদোর খেলাটা তো তার চেয়ে ভালো বুঝতেন কম খেলোয়াড়ই। নিঃস্বার্থে নিজের ভূমিকা পাল্টে বেনজেমা খেলছেন রোনালদোর জন্য জায়গা তৈরি করে দিতে। কিন্তু রোনালদো মাদ্রিদ ছাড়ার পর এখন রিয়াল মাদ্রিদের আক্রমণের নেতা বেনজেমা নিজেই। আর সুযোগটা কাজে লাগিয়ে ফুটবলের মাঠে ফোটাচ্ছেন ফুল। ক্যারিয়ারের সেরা মৌসুম পার করা বেনজেমা এই মৌসুমে ৩৪ ম্যাচেই করে ফেলেছেন ৩৭ গোল।

লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার ‘পিচিচি’ এবার বেনজেমার দখলে যাওয়াটা একপ্রকারের নিশ্চিত। ২২ গোলের সঙ্গে ১১ অ্যাসিস্ট জানান দিচ্ছে বেনজেমা শুধু স্কোরার নন, বরং তাকে প্লে মেকিং স্ট্রাইকার বলাটাই মানানসই।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বেনজেমা যেন এবার অপ্রতিরোধ্য। ৮ ম্যাচে ১১ গোল করে ফেলেছেন কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগ পর্যন্ত। এর মধ্যে নকআউট রাউন্ডেই ৬টি। শেষ-১৬ এর সেকেন্ড লেগে হ্যাটট্রিক করে বিদায় করেছেন লিওনেল মেসি-নেইমার-এমবাপ্পের পিএসজিকে। কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগেও নায়ক সেই বেনজেমাই। রিয়াল মাদ্রিদের সামনে অলঙ্ঘনীয় এভারেস্ট হয়ে থাকা চেলসি জয় করতে বেনজেমার সময় লেগেছে মাত্র তিন মিনিট। রিয়াল মাদ্রিদে রোনালদোর উত্তরসূরি বেনজেমা নকআউটে টানা দুই ম্যাচে হ্যাটট্রিকে করে বসেছেন রোনালদোর পাশেই। রিয়াক মাদ্রিদের অতীত ও বর্তমান নায়ক ছাড়া এই রেকর্ড নেই আর কারোর।

মাদ্রিদে রোনালদোর পাশে পার্শ্বনায়কের ভূমিকায় থাকা বেনজেমা এখন রোজ নায়ক হয়ে উঠছেন মাদ্রিদের। কেউ তাকে বলছে মাদ্রিদের ব্যাটম্যান, যে কমিক বুকের গোথাম সিটির মতো মাদ্রিদের রক্ষাকর্তা। পিএসজির পর চেলসির বিপক্ষেও মাদ্রিদের উদ্ধারকর্তা বেনজেমা। মাদ্রিদের সেইন্ট ক্যাসিয়াস তো বেনজেমাকে তুলনা করলেন স্পাইডারম্যানের সঙ্গেও!

বেনজেমা রেকর্ড গড়েছেন ফরাসি ফুটবলার হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এক মৌসুমে সর্বোচ্চ গোলেরও। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ নামকরণের পর প্রথম ফরাসি হিসেবে ১০ গোলের ট্যালি ছুঁয়েছেন বেনজেমা। ৮ ম্যাচে ১১ গোল করেছেন বেনজেমার।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের আগের ভারসন ইউরোপিয়ান কাপকে হিসেবে নিলেও বেনজেমার উপরে নেই কেউ। বেনজেমার আগে সর্বশেষ ফরাসি হিসেবে এই আসরে ১০ গোল করেছিলেন এক বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়া জাস্ট ফন্টেইন। ১৯৫৯ সালে ফরাসি ক্লাব রিঁমের হয়ে ১০ গোল করেছিলেন ফন্টেইন। সেবার ফাইনাল খেলা ফন্টেইনকে পরাজয়ের স্বাদ দিয়েছিল বেনজেমার ক্লাবই।

গতকালের হ্যাটট্রিকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বেনজেমার গোলের সংখ্যা পেরিয়েছে আশির কোটা। ৮১ গোল নিয়ে বেনজেমা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় চার নম্বরে আছেন। সবার ওপরে আছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। মেসি ও লেভানদোফস্কির পরের স্থানটিই কিং বেনজেমার।

বেনজেমা সব সমালোচনার উত্তর খেলা দিয়েই দিয়েছেন তার ক্যারিয়ারজুড়ে। ফ্রান্স জাতীয় দল থেকে বাদ পড়েছিলেন সতীর্থের সঙ্গে আপত্তিকর ঘটনার সূত্র ধরে। বাদ পড়ে আর অংশ নেওয়া হয় নি ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ের মিশনে। তবে তাকে উপেক্ষা করে থাকা যায় না। তাই দিদিয়ের দেশমের দলে তিনি আবার ফিরেছেন। ২০২২ কাতার বিশ্বকাপে ফ্রান্সের শিরোপা ধরে রাখার মিশনে প্রধান অস্ত্র হতে পারেন করিম মোস্তাফা বেনজেমা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.