ভারাক্রান্ত হৃদয়ে সুবর্ণজয়ন্তীর র‌্যালিতে এসেছেন সবাই: ফখরুল

বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে রাজধানীতে বিএনপির কর্মসূচি শুরু হয়েছে। এতে অংশ নিতে রাজধানীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নয়াপল্টনে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে জড়ো হয়েছেন হাজারো নেতাকর্মী।

0 1,518

রোববার (১৯ ডিসেম্বর) সকাল থেকেই দলে দলে আসতে থাকেন নেতাকর্মীরা। দুপুরের দিকে শোভাযাত্রায় যোগ দিয়েছেন কেন্দ্রীয় নেতারাও। এতে পুলিশি নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

বর্তমানে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে তৈরি করা অস্থায়ী মঞ্চে বক্তব্য দিচ্ছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বক্তব্যের শুরুতেই তিনি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করেন। বলেন, ‘আমরা সবাই আজকের শোভাযাত্রায় অত্যন্ত ভারাক্রান্ত হৃদয়ে অংশ নিচ্ছি। কারণ, গণতন্ত্রের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আজ কারাগারে বন্দি। বারবার আবেদন করার পরও তার সুচিকিৎসার কোনো ব্যবস্থা সরকার করছে না। অথচ বিজয়ের ৫০ বছরে আমাদের সবচেয়ে খুশি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আমরা সেটি পারছি না।’

তিনি বলেন, ‘আজকে দেশে বাকস্বাধীনতা নেই। অথচ দেশ স্বাধীন হওয়া মানে বাকস্বাধীনতা থাকবে, গণতন্ত্র থাকবে।’ আজকে দেশে কেউ কথা বলতে পারে না বলেও অভিযোগ করেন তিনি।


আজকের র‌্যালিকে গণতন্ত্র ও বাকস্বাধীনতা ফিরিয়ে আনার র‌্যালি বলেও মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘বর্তমান সরকার আমাদের লেখার অধিকার কেড়ে নিয়েছে, আমাদের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। তাই আজকের এই র‌্যালি দেশের মানুষের নতুন করে সংগ্রামের র‌্যালি। আজকের র‌্যালি খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার র‌্যালি। দেশের মানুষকে মুক্ত করার র‌্যালি। দেশের মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার র‌্যালি।’

শোভাযাত্রায় যুবদল, কৃষকদলসহ বিএনপির অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা হাতে প্ল্যাকার্ড ব্যানার, ফেস্টুন ও জাতীয় পতাকা নিয়ে সমবেত হন। দেশে গণতন্ত্র নেই দাবি করে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দেশে সুচিকিৎসা পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ তাদের।

শোভাযাত্রাটি নাইটিঙ্গেল মোড় হয়ে কাকরাইল ও শান্তিনগর ঘুরে পুনরায় নয়াপল্টনে এসে শেষ হবে। বিএনপির বিজয় শোভাযাত্রা কেন্দ্র করে নয়াপল্টন এলাকায় বাড়ানো হয়েছে পুলিশি নিরাপত্তা।


যদিও শোভাযাত্রা শুরু হওয়ার আগে হাতাহাতিতে জড়িয়েছেন নেতাকর্মীরা। দুপুরে রাজধানীর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে নেতাকর্মীদের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। যদিও পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যায়।
Leave A Reply

Your email address will not be published.