বার্সেলোনা-রিয়াল ‘এল ক্লাসিকো’ রাতে

মৌসুমের প্রথম এল ক্লাসিকোতে মুখোমুখি হচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ এবং বার্সেলোনা। স্প্যানিশ সুপার কাপের সেমিফাইনালের লড়াইয়ে নামবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী। মেসি-রোনালদো পরবর্তী যুগে আগের সেই উন্মাদনা না থাকলেও মর্যাদার লড়াইয়ে এক চুল ছাড় দিতে নারাজ দুই দলই। সৌদি আরবের কিং ফাহাদ স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বুধবার (১২ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সময় রাত একটায়।

0 9,883

এল ক্লাসিকো, নামে ভারে যার কাছাকাছি নেই কোনো ম্যাচ। কে খেলছেন আর কে খেলছেন না কখনই সেটা বিবেচ্য হয় না এখানে। ফুটবলারদের নামের চেয়েও ক্লাব দুটোর জার্সির ওজন সমর্থকদের কাছে প্রাধান্য পায় অনেক বেশি। তাই তো, মেসি-রোনালদো চলে যাওয়ার পর জৌলুস কমে যাওয়ার ভয় থাকলেও বাস্তবতা বলছে এখনো ফুটবলের এ ধ্রুপদী ম্যাচ দেখতে মুখিয়ে দেশ-বিদেশের কোটি দর্শক। যার বড় প্রমাণ, মৌসুমের প্রথম এল ক্লাসিকোর এবারের ভেন্যু সৌদি আরবের রিয়াদ।

ম্যাচের আগে খুব একটা স্বস্তিতে নেই বার্সেলোনা। এ মৌসুমে খুব বেশি উল্লাসের সুযোগ পায়নি দলটি। মেসি চলে যাওয়ার পর আরও ভেঙে গেছে কাতালানরা। কোচ বদলালেও ভাগ্য এখনো বদলায়নি বার্সার।

ইনজুরি নিয়ে ভালোই ফ্যাসাদে পড়েছে কাতালোনিয়ান শিবির। এরিক গার্সিয়া ছিটকে গেছেন হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে। আর আগে থেকেই সে দলে ছিলেন রবার্তো এবং ব্রেইথওয়েইট। তবে কোভিড নিয়ে সুখবর পেয়েছে বার্সেলোনা। ফ্রাঙ্কি ডি জং, আরাউজো, আনসু ফাতির পর এবার পেদ্রি এবং ফেরান টরেসও ফিরে এসেছেন নেগেটিভ হয়ে।

তবে রিয়ালের সাম্প্রতিক ফর্ম ভাবাচ্ছে জাভিকে। যদিও মর্যাদার এ ম্যাচে অতীত পরিসংখ্যান কোনো অর্থই যে বহন করে না, সেটা তার চেয়ে ভালো আর কে জানে।

বার্সা কোচ জাভি বলেন, আমরা একটা পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। অন্যদিকে রিয়াল খুব ভালো ছন্দে আছে। আমরা এখন তাদের থেকে অনেক পিছিয়ে। তবে এ ম্যাচটা আমাদের সবার জন্য বিশেষ কিছু। আমি আশা করব, ছেলেরা নিজেদের উজাড় করে দেবে।

বার্সেলোনার মতো এতো সমস্যা নেই রিয়াল মাদ্রিদে। কেবল মাত্র মারিয়ানো ডিয়াজ এবং গ্যারেথ বেলকে নিয়েই কিছুটা শঙ্কা লস ব্লাঙ্কোদের।

তবে কারভাহাল এবং লুকা জোভিচ ফিরে আসায় শক্তিমত্তা বেড়েছে আনচেলোত্তির। যদিও কারিম বেনজামা আর ভিনিসিয়াসের ফর্ম অন্য কিছু নিয়ে ভাবতেই দিচ্ছে না রিয়াল মাদ্রিদকে।

রিয়াল কোচ আনচেলোত্তি বলেন, এটা খুব কঠিন একটা ম্যাচ হতে যাচ্ছে। লা লিগার ফর্ম এখানে খুব একটা কাজে আসবে না। দুই দলের ফুটবলাররাই এরকম ম্যাচের জন্য অপেক্ষা করে। আশা করি দুর্দান্ত কিছু হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.