গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন গঠনই আলোচনার লক্ষ্য: রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন গঠনে রাজনৈতিক দলগুলোর মতামত নেওয়াই এ আলোচনার লক্ষ্য।

0 6,597

রোববার (২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় ইসি গঠনে বঙ্গভবনে গণফোরামের সঙ্গে আয়োজিত আলোচনায় এ সব কথা বলেন রাষ্ট্রপতি।

এদিন বিকেলে নির্বাচন কমিশন গঠনে বিষয়ে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে আলোচনায় অংশ নেয় গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি মোকাব্বির খানের নেতৃত্বে আট সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল।

বঙ্গভবনে তাদের স্বাগত জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বলেন, রাজনীতিবিদদের অনুকরণীয় এমন কিছু করা দরকার, যা থেকে নতুন প্রজন্ম শিক্ষা নিয়ে নিজেদের গড়ে তুলতে পারে।

আলোচনাকালে গণফোরামের প্রতিনিধি দল নিরপেক্ষ ও শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠনে আইন প্রণয়নসহ কয়েকটি প্রস্তাব দেয়।

তারা আশা করেন, রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে রাষ্ট্রপতির চলমান এ সংলাপ একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন গঠনে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।

এরপর সন্ধ্যায় বিকল্প ধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নানের নেতৃত্বে ৭ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল বঙ্গভবনের দরবার হলে অনুষ্ঠিত আলোচনায় অংশ নেয়।

সংলাপ শেষে সাংবাদিকদের দলটির যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি চৌধুরী বলেন,  সার্চ কমিটি গঠনের জন্য দেশের তিনজন বিশিষ্ট নাগরিক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা রোকেয়া আফজাল রহমান, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সাবেক সচিব মোহাম্মদ মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের নাম সুপারিশ করেছে বিকল্পধারা বাংলাদেশ।

তিনি বলেন, ইসি গঠন নিয়ে খোলামেলা আলোচনা হয়েছে। এ বিষয়ে স্থায়ী আইন থাকার পক্ষে মত দেওয়া হয়েছে। আমরা দাবি করেছি, সকল দলের সমন্বয়ের আইন করতে হবে।

এছাড়া স্থায়ী আইন করতে রাষ্ট্রপতির কাছে আরও দুই প্রস্তাব দিয়েছে বিকল্পধারা। প্রস্তাব দুটি হলো-

১. নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলো সার্চ কমিটির কাছে একজন প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও একজন কমিশনারের নাম প্রস্তাব করবেন।

২. প্রস্তাবিত নাম থেকে সার্চ কমিটি প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য নির্বাচন কমিশনার নিয়োগের জন্য নাম (প্রয়োজনীয় সংখ্যক) মহামান্য রাষ্ট্রপতির কাছে প্রস্তাব করবেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.