এনডিটিভি খবরে জানানো হয়, রাশিয়ার গামালি ইনস্টিটিউট অব এপিডেমাইলজি এন্ড মাইক্রোবায়োলজির তৈরি ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ গত ১৮ জুন শুরু করে সেচেনভ ফার্স্ট মস্কো স্টেট মেডিকেল ইউনিভার্সিটি। ইনস্টিটিউট ফর ট্রান্সলেশনাল মেডিসিন এন্ড বায়োটেকনোলজির পরিচালক ভাদিম তারাসভ বলেন, সেচেনভ ইউনিভার্সিটি করোনারোধে বিশ্বের প্রথম ভ্যাকসিনের পরীক্ষা স্বেচ্ছাসেবীদের ওপর সফলভাবে চালিয়েছে। তিনি বলেন, ভ্যাকসিন পরীক্ষায় অংশ নেওয়া স্বেচ্ছাসেবীদের প্রথম দলকে আগামী বুধবার ও দ্বিতীয় দলকে ছাড়া হবে ২০ জুলাই ছেড়ে দেয়া হবে।

রাশিয়ায় করোনার ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল সফলভাবে শেষ হয়েছে। রুশ স্পুটনিক সংবাদ সংস্থার খবরে সেচেনভের ফার্স্ট মস্কো স্টেট মেডিকেল ইউনিভার্সিটির এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে জানানো হয়, ভ্যাকসিনের এই পরীক্ষা স্বেচ্ছাসেবীদের ওপর চালানো হয়। এটি বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিনের সফল পরীক্ষা বলে দাবি রুশ বিশ্ববিদ্যালয়টির।

সেচেনভ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট ফর মেডিকেল প্যারাসিটোলজি, ট্রপিক্যাল এন্ড ভেক্টর বর্ন ডিজিজের পরিচালক আলেকসান্দর লুকাসেভ বলেন, মানুষের শরীরে এই ভ্যাকসিন নিরাপদ কি না, তা জানতে এই পরীক্ষা চালানো হয়। এটা সফলভাবে শেষ হয়েছে।

স্পুটনিক সংবাদ সংস্থাকে লুকাসেভ জানান, ভ্যাকসিনের নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। এটি বাজারে থাকা অন্য ভ্যাকসিনগুলোর মতোই সুরক্ষিত। ভ্যাকসিনটির উন্নয়নের জন্য আরও পরিকল্পনা রয়েছে।

ইনস্টিটিউট ফর ট্রান্সলেশনাল মেডিসিন এন্ড বায়োটেকনোলজির পরিচালক ভাদিম তারাসভ বলেন, সেচেনভ বিশ্ববিদ্যালয় মহামারি পরিস্থিতিতে শুধু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করছে না, এখানে বৈজ্ঞানিক ও প্রযুক্তি বিষয়ে গবেষণা চলছে। এ কারণে সম্ভব হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ ওষুধ তৈরি। এই ভ্যাকসিন নিয়ে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের পূর্ববর্তী নানা গবেষণা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here