সার্চ কমিটির চিঠি গেছে রাজনৈতিক দলগুলোর অফিসে

নির্বাচন কমিশন গঠনে পছন্দের নাম চেয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে চিঠি পাঠিয়েছে সরকার। বুধবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে এসব চিঠি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর অফিসের ঠিকানায় ও ই-মেইলে পাঠিয়েছে সার্চ কমিটির সাচিবিক সহায়তা প্রদানকারী মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

0 9,736

সার্চ কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী দেশের সুশীল সমাজ, সাংবাদিক ও পেশাজীবী বিভিন্ন সংগঠনের ব্যক্তিদের কাছেও বৈঠকে আমন্ত্রণ জানিয়ে চিঠি পাঠানোর কাজ শুরু হয়েছে। কয়েকজনের কাছে চিঠি পাঠানো হলেও পুরো কাজ শেষ হতে কিছু সময় লাগবে বলে জানিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

কারা চিঠি পাচ্ছেন এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্মসচিব শফিউল আজিম সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তারা সবাই আপনাদের পরিচিত। বিশেষ করে নির্বাচন বিষয়ে যারা কাজকর্ম করেন, অতীতে করেছেন, এ নিয়ে কথাবার্তা বলেন, সুপারিশ, পরামর্শ দেন- মূলত তাদেরকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে। ৬০ জনের কাছে চিঠি পাঠানো সময়সাপেক্ষ। তাই আরও কিছুটা সময় প্রয়োজন হবে।

সূত্র জানায়, ইতোমধ্যে কয়েকজনের কাছে আমন্ত্রণ জানিয়ে চিঠি পাঠানোর প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। এদের মধ্যে সাবেক নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার সাখাওয়াত হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, শিক্ষাবিদ ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবাল, মানবাধিকারকর্মী ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা সুলতানা কামাল, স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ তোফায়েল আহমেদ রয়েছেন।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানিয়েছেন, আগামী শনি ও রোববার দুই দিনে অনুসন্ধান (সার্চ) কমিটি এদের সঙ্গে তিনটি পৃথক বৈঠক করবেন।

এরআগে, মঙ্গলবার বিকেলে সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে দ্বিতীয় বৈঠকে বসে সার্চ কমিটি। বৈঠক শেষ হয় রাত ৮টায়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব আনোয়ারুল ইসলাম কমিটির কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরে সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠন এবং অন্যদের কাছেও নামের প্রস্তাব চাওয়া হবে। তারাও সুপারিশ-পরামর্শ দিতে পারবেন। সুশীল সমাজ, সাংবাদিক ও পেশাজীবী সংগঠনের ব্যক্তিদের সঙ্গে আগামী শনি ও রোববার দুই দিনে তিনটি বৈঠক করবে সার্চ কমিটি।

তাদের কাছেও চিঠি পাঠানো হবে জানিয়ে তিনি বলেছিলেন, শনিবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এবং পৌনে ১টা থেকে সোয়া ২টা পর্যন্ত দুটি মিটিং হবে। পরদিন রোববার বিকেল ৪টায় আবার মিটিং হবে।

বর্তমান ইসির মেয়াদ শেষ হচ্ছে ১৪  ফেব্রুয়ারি। অনুসন্ধান কমিটির মেয়াদ ১৫ কার্যদিবস।

Leave A Reply

Your email address will not be published.