খালেদাকে মুক্তিযোদ্ধা বলায় কাদেরের প্রতিবাদ

চিরাচরিত মিথ্যাচারের অপরাজনীতিতে বিএনপি নেতারা নিমগ্ন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, খালেদা জিয়াকে নারী মুক্তিযোদ্ধা বলে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যে বক্তব্য দিয়েছেন, তা বাংলা সাহিত্যের আষাঢ়ে গল্পের মতো।

0 2,562

শনিবার (২৫ ডিসেম্বর) এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন আওয়ামী লীগে সাধারণ সম্পাদক। এ সময় বিএনপি মহাসচিবের বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান কাদের।

সেতুমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়াকে মুক্তিযোদ্ধা আখ্যা দিয়ে প্রকৃতপক্ষে একাত্তরের রণাঙ্গনে অংশ নেওয়া বীর নারীদের গৌরবগাঁথা এবং বীর মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগের প্রতি কটাক্ষ করার অপচেষ্টা চালিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব। কারণ মুক্তিযুদ্ধবিরোধী অপশক্তিই বিএনপির শক্তির একমাত্র উৎস।

আওয়ামী লীগে সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি নেতারা এ ধরনের বানোয়াট গল্প থেকে বিরত থাকবেন বলে আশা করি। তাদের বোধোদয় হওয়া উচিত, মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতির মতো ঔদ্ধত্যপূর্ণ ও জাতিদ্রোহিমূলক কার্যকলাপে লিপ্ত থাকার কারণেই বিএনপি জনগণ দ্বারা বারবার প্রত্যাখ্যাত হয়েছে।

কাদের বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলামসহ বিএনপি নেতারা বিদেশে অর্থপাচারের কথা বলেছেন। দেশবাসী জানেন, এ অর্থপাচারের মূল হোতা কারা ও হাওয়া ভবন সৃষ্টি করে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাট করে বিদেশে পাচার করেছে। দুর্নীতিতে বারবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ও অর্থপাচারকারীদের দল বিএনপি নেতাদের মুখে অর্থপাচারের কথা ভূতের মুখে রাম নাম ছাড়া কিছু নয়!

তিনি আরও বলেন, এ দেশের জনগণ জানে, বিএনপির সাজাপ্রাপ্ত নেতা, একাত্তরের পরাজিত অপশক্তি ও যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা, সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে লবিস্ট নিয়োগে এবং বিএনপির মনোনয়ন ও পদ বাণিজ্যের হাজার হাজার কোটি টাকা দেশ থেকে কারা পাচার করছে।

মন্ত্রী বলেন, সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে আর্থ-সামাজিক সব সূচকেই বাংলাদেশের অভূতপূর্ব অগ্রগতি সাধিত হচ্ছে। দেশের টাকা দেশে আছে বলেই উত্তরোত্তর বিনিয়োগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। অথচ বিশ্ব সভায় উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃত বাংলাদেশের কোনো উন্নয়নই বিএনপি নেতাদের চোখে পড়ে না।

Leave A Reply

Your email address will not be published.