ট্রেনে তিল ধারণের ঠাঁই নেই, টিকিট কেটেও দুর্ভোগ

ঈদযাত্রার তৃতীয় দিনে মানুষের ঢল নামে রেলস্টেশনগুলোতেও। শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) প্রতিটি ট্রেনই নির্ধারিত আসনের চেয়ে বেশি যাত্রী নিয়ে ঢাকা ছাড়ে। ঝুঁকি নিয়ে অনেকে ওঠেন ট্রেনের ছাদে। তবে বেশিরভাগ ট্রেন যথাসময়ে স্টেশন ছাড়ায় স্বস্তি ছিল যাত্রীদের মাঝে।

0 15,126

প্রিয়জনের সঙ্গে দু’বছর পর ঈদ। নির্ধারিত সময়ের আগেই তাই প্লাটফর্মে হাজারো মানুষের ভিড়। তৃতীয় দিনের ঈদযাত্রায় ট্রেনে তিল ধারণের ঠাঁই ছিল না। টিকিট না পেয়ে অনেকেই ঝুঁকি নিয়ে ছাদে ওঠেন।

অগ্রিম টিকিট কেটেও অনেককে নির্ধারিত আসন পেতে পড়তে হয়েছে দুর্ভোগে। ট্রেনে স্ট্যান্ডিং টিকিট বিক্রি বন্ধ থাকলেও মানা হয়নি নিয়ম। এতো ঝক্কি ঝামেলা পেরিয়েও ঘরে ফেরার যাত্রায় খুশি যাত্রীরা।

উত্তরবঙ্গগামী দুয়েকটি ট্রেন ছাড়া বেশির ভাগ ট্রেন নির্ধারিত সময়ে স্টেশন ছেড়েছে। ফলে যাত্রীদের স্বস্তি ছিল এবারের ট্রেন যাত্রায়।

তবে কয়েকজন যাত্রী বলেন, এত ভিড় যে ট্রেনে ওঠা কঠিন হয়ে যাচ্ছে। টিকিট কেটেও আসনে বসতে পারছেন না। মানুষের ভিড়ে গরমে অস্থির হয়ে উঠছেন।

এদিকে অতিরিক্ত যাত্রী সামাল দিতে হিমশিম খেতে হয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যারা ট্রেনের ছাদে ভ্রমণ করবেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানায় রেল কর্তৃপক্ষ।

এছাড়া আজ থেকে বিভিন্ন রুটে স্পেশাল ট্রেন চালু হয়েছে। ঈদে ট্রেনে প্রতিদিন গড়ে ৫০ হাজার যাত্রী পরিবহন করার কথা জানিয়েছে রেল।

Leave A Reply

Your email address will not be published.