দ্বিতীয় ধাপের ৬০টি পৌরসভা নির্বাচনে দুয়েকটি নগণ্য ঘটনা ছাড়া সুষ্ঠু ও সুন্দর ভোট হয়েছে বলে দাবি করেছেন নির্বাচন কমিশনের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. আলমগীর।
এ ধাপে ইভিএম ও ব্যালটে গড়ে ৬০-৭০% ভোট পড়েছে বলে ধারণা করছেন তিনি। গতকাল শনিবার ভোট শেষে সন্ধ্যায় নির্বাচন ভবনে ইসি সচিব আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, সার্বিক পরিস্থিতি অত্যন্ত ভালো ছিল। প্রচুর ভোটার উপস্থিতি ছিল। দুয়েকটি জায়গায় দুষ্কৃতিকারীরা অপচেষ্টা করেছে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে; এটা খুবই নগণ্য ঘটনা।
এদিকে, ভোট চলাকালে সাভারের তিনটি কেন্দ্র পরিদর্শন করে একে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন বলা যায় না বলে অভিমত দিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। গতকাল শনিবার বিকালে আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের কাছে লিখিত বক্তব্যে একথা বলেন তিনি। পৌর নির্বাচনে সহিংসতা বেড়ে যাওয়া নিয়েও উদ্বেগ জানিয়েছেন তিনি। মাহবুব তালুকদার বলেন, পৌরসভার নির্বাচনে ক্রমাগত সহিংসতা বেড়ে চলেছে। সহিংসতা ও নির্বাচন একসঙ্গে চলতে পারে না। নির্বাচন প্রক্রিয়ার পরিবর্তন না হলে এই সহিংসতা বন্ধ করা সম্ভব নয়। এ বিষয়ে সকলের ঐক্যমত আবশ্যক। যে কোনো নির্বাচনের চেয়ে মানুষের জীবন অনেক বেশি মূল্যবান। খবর বিডি-বাংলার।
ইসি সচিব জানান, বোয়ালমারীতে একটি কেন্দ্রে ব্যালটবাঙ ছিনিয়ে নেওয়ার অপেচষ্টা করলে কেন্দ্রটি স্থগিত করা হয়েছে। কিশোরগঞ্জেও একটি কেন্দ্রে ভোট বন্ধ করা হয়েছে। বিভিন্ন এলাকায় গোলযোগ ও সহিংসতার বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে সচিব বলেন, ৬০ পৌরসভার মধ্যে দুয়েকটি কেন্দ্রে হয়েছে, স্থগিতও করা হয়েছে। দুষ্কৃতকারীদের এ ধরনের অপচেষ্টা থাকে ভোটকে বিতর্কিত করার জন্য, কিন্তু তারা সফল হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here