নগরীতে খুন হয়েছেন এক মহিলা ও তার ছেলে। চান্দগাঁও এলাকার একটি বাসা থেকে মা ও তার ৯ বছর বয়সী ছেলের রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল রাত আটটা নাগাদ পুরাতন চান্দগাঁও এলাকায় শরাফত উল্লাহ পেট্রোল পাম্প সংলগ্ন একটি বাসা থেকে তাদের দু’জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত মহিলার নাম গুলনাহার বেগম (৩৩), ছেলের নাম রিফাত।
চান্দগাঁও থানার ওসি আতাউর রহমান খন্দকার জানান, খুনের কারণ সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি, তদন্ত চলছে। ঘটনাস্থলে যাওয়া চান্দগাঁও থানার এসআই সজল কান্তি দাশ বলেছেন, নিহত মহিলার বাড়ি কুমিল্লায়। সেখানে এক লোকের সাথে তার বিয়ে হলেও পরবর্তীতে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। এক ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে চান্দগাঁওয়ে বাসা ভাড়া করে থাকতেন। ১৯ বছর বয়সী মেয়েটি স্থানীয় একটি গার্মেন্টসে কাজ করেন। ওই মহিলার আরও একটি ছেলে কুমিল্লায় রয়েছে। ঘটনার দিন সন্ধ্যায় গুলনাহারের মেয়ে ময়ুরী গার্মেন্টস থেকে বাসায় ফিরে এসে তার মা ও ভাইয়ের লাশ দেখতে পান। মায়ের লাশটি ঘরের বাথরুমের ভেতর ও ভাইয়ের লাশটি ঘরের ভেতর পড়ে ছিল। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে।
এসআই সজল বলেন, নিহত গুলনাহার হোটেল ও বাসায় রান্নবান্নার কাজ করতেন। বাসায় ফারুক নামে স্থানীয় এক লোকের যাতায়াত ছিল। তিনি রং মিস্ত্রির কাজ করেন। ওই মহিলা ঘরে তৈরি করা বিভিন্ন খাবার ফারুককে দিয়ে বাইরে বিক্রি করতেন। কিন্তু ঘটনার পর থেকে ফারুককে পাওয়া যাচ্ছে না। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, দুপুরের পর থেকে ঐ ঘরের দরজায় বাইরে থেকে সিটকানি দেওয়া ছিল।
এসআই সজল জানান, খুনের কারণ জানার চেষ্টা করা হচ্ছে । সিআইডির একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌছে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করে নিয়ে গেছে। মায়ের পেটে ছুরিকাঘাত ও ছেলের গলায় আঘাত করার চিহ্ন পাওয়া গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here