শনিবার রাতে সীতাকুণ্ড উপজেলার ফৌজদারহাট ইউনিয়নের কেশবপুর গ্রামের ওই বাড়ি থেকে মো. নুরুদ্দিনের (৩৭) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নুরুদ্দিনের বাড়ি নোয়াখালীতে হলেও চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে তিনি মাছের ব্যবসা করতেন। পরিবার নিয়ে থাকতেন ফৌজদারহাটের কেশবপুরে।

সীতাকুণ্ড থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুমন বণিক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, এ ঘটনায় রোমান মিয়া নামে একজন অটোচালককে আটক করা হয়েছে।

তিনি বলেন, নুরুদ্দিনকে না দেখে তার বাসার মালিক বিষয়টি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যকে জানান।

“স্থানীয় লোকজন রোমানকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে নুরুদ্দিনকে হত্যা করে মাটির নিচে পুঁতে রাখার কথা স্বীকার করে। নুরুদ্দিনকে খুন করে মাটির নিচে পুঁতে রাখা হলেও তার স্ত্রী বিষয়টি গোপন রেখেছে।

“রোমান পুলিশকে জানিয়েছে, নুরুদ্দিন তার স্ত্রীকে মারধর করত। তাই সে খুন করে মাটির নিচে চাপা দিয়েছে।”

পুলিশ কর্মকর্তা সুমন জানান, বাড়ির সামনে মুরগির ঘরে নুরুদ্দিনকে মাটিচাপা দেওয়া হয়। পরে পুলিশ গিয়ে সেখান থেকে তার লাশ উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় নুরুদ্দিনের স্ত্রীও জড়িত কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here