তরুণদের উদ্ভাবনী চিন্তা-সৃজনশীলতা নিয়ে এগিয়ে আসার আহ্বান

বন্যা শেষ হলে সময় মতো কার্যকর পুনর্বাসন কর্মসূচি হাতে নিয়ে সেগুলো বাস্তবায়নের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল সোমবার ভার্চুয়াল মন্ত্রিসভা বৈঠকে বন্যা নিয়ে আলোচনার সময় প্রধানমন্ত্রী এই নির্দেশনা দেন বলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানিয়েছেন। মন্ত্রিসভা বৈঠকের পর সচিবালয়ে এক ব্রিফিংয়ে সচিব বলেন, পুনর্বাসন প্রোগ্রামগুলো যেন খুব ভালো হয়, খুব ইফেকটিভলি ও টাইমলি হয়, সেটার বিষয়ে মন্ত্রিসভা বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী জোর দিতে বলেছেন। বন্যা নিয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকে দীর্ঘ আলোচনা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রী বিস্তারিত ব্যাখ্যা দিয়েছেন। বন্যা দীর্ঘস্থায়ী হলে কী করণীয়, তাও বলেছেন তিনি। এজন্য ফিল্ড লেভেলে ইন বিল্ড একটা ম্যাকানিজম আছে, তারপরও একটা এক্সটা অ্যাফোর্ড দেওয়া হচ্ছে, বিশেষভাবে দৃষ্টি দেওয়া আছে। কারণ আভাস আছে পানি নামতে দেরি হতে পারে, যদিও এখন পানি নেমে যাচ্ছে। এই প্রসঙ্গে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, কানাডার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেডিকশন আছে বিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তনের দৃশ্যপট আছে তাতে বঙ্গোপসাগরসহ কতগুলো সাগরের কথা বলেছে সেখানে পানির উচ্চতা এই সময়টাতে বেড়ে যাচ্ছে। সাগরের পানির উচ্চতা বেড়ে গেলে পানি নামার ফ্লো কমে যাবে। সেক্ষেত্রে আমাদের প্রিপারেশন রাখতে হবে।
বিডিনিউজ ও বাংলানিউজের খবরে বলা হয়েছে যে,ব্যাপ্তির বিচারে আগের অনেক বন্যার চেয়ে এবারের বন্যা কম ভয়ঙ্কর হলেও এবারে গতি-প্রকৃতি ‘কিছুটা ব্যতিক্রম’ বলে মনে করছেন বুয়েটের পানি ও বন্যা ব্যবস্থাপনা ইন্সটিটিউটের অধ্যাপক এ কে এম সাইফুল ইসলাম। তিনি বলছেন, প্রচুর রাস্তাঘাট আর অবকাঠামোগত উন্নয়ন হওয়ায় নদীর মুখ অনেক জায়গা ভরাট হয়ে গেছে। তাতে বন্যা আর আগের মতো বেশি এলাকায় না ছড়িয়ে অববাহিকায় আটকে থাকছে, তাতে বন্যার স্থায়িত্ব বাড়ছে।
সচিব আনোয়ারুল বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাদের ক্লিয়ার ইন্সট্রাকশন দিয়ে দিয়েছেন, বন্যার্তদের যত রকমের সাহায্য-সহযোগিতা দরকার সবগুলো করতে হবে। কোভিডের এই সময় যেহেতু বন্যা, তাই একটু বেশি কেয়ারফুল থাকতে হবে। বন্যায় আমন ধানের ক্ষতি হলেও জমিতে পলি পড়ার কারণে বন্যার পরের সুফলটা নিতে কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেওয়ার কথা জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, উঁচু এলাকায় আমনের ফলন ভালো হবে বলে মনে হচ্ছে বলে কৃষিমন্ত্রী জানিয়েছেন।
বন্যা দুর্গত এলাকায় স্যালাইন, পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট, ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট, বিশেষ করে করে গরু-বাছুরকে যে ভ্যাকসিন দেওয়ার, সেগুলো যেন সব নিয়মিত দেওয়া হয়, সেই নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

তরুণদের প্রতি আহ্বান : মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, কোভিডের কারণে ত্রাণ সরবরাহের জন্য সরকারের প্রস্তুতি ছিল। সবকিছু ওপেন করে দেওয়ায় ত্রাণের চাহিদা কমে গেছে। ভালো একটা রিলিফ আমাদের কাছে মজুদ আছে।
ওদিকে পৃথক এক অনুষ্ঠানে কোভিড-১৯ মহামারিকালীন এবং পরবর্তীকালে টেকসই ভবিষ্যৎ বিনির্মাণে সৃজনশীল ধারণা এবং উদ্ভাবনী চিন্তা নিয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় সম্পৃক্ত হতে যুবকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, কোভিড-১৯ কর্মক্ষেত্রে গতি এবং পরিমাণ উভয়টিই অত্যাবশ্যকীয় করে তুলেছে। ‘ঢাকা ইয়ূথ ক্যাপিটাল ২০২০’ ‘একটি স্থিতিস্থাপক ভবিষ্যতের জন্য : সমতা এবং সমৃদ্ধি’ শীর্ষক ভার্চ্যুয়াল সম্মেলনে ভিডিও বার্তায় এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, মানুষ চাইলে অর্থনৈতিক এবং নির্বাহী নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে অনড়তা বেছে নিতে পারে। আবার অপ্রতিরোধ্য বাধা অতিক্রম করতে নতুন ধারণা, নমনীয়তা এবং গতিশীলতা বেছে নিতে পারে। এক্ষেত্রে যুবকদের তাদের ভবিষ্য নির্মাণে ধারণা এবং উদ্ভাবনী শক্তি নিয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণে অংশীদার হওয়ার বিরাট সুযোগ রয়েছে। করোনা সংকট মোকাবিলা এবং ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের কষ্ট লাঘবে বাংলাদেশ সরকারের ১২.১ বিলিয়ন ডলারের প্যাকেজ ঘোষণার কথা উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here