সানজিদা আক্তার রুনা, নাইক্ষ্যংছড়িঃনাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় বৃট্রিশ আমেরিকান ট্যোবাকোর (প্রবাহ) অর্থায়নে আর্সেনিকমুক্ত ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্টের উদ্বোধন করেন বান্দরবান জেলা প্রশাসক মো. দাউদুল ইসলাম। উদ্বোধন কালে জেলা প্রশাসক বলেন, বাংলাদেশের পানিতে আর্সেনিকের আধিক্য মানুষের জন্য একটি হুমকি। নানা ভাবে আর্সেনিকমুক্ত পানি সরবরাহের চেষ্টা করছে সরকার। তার পাশাপাশি বিএটি বাংলাদের বিভিন্ন অঞ্চলে এ আর্সেনিকমুক্ত ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট স্থাপন করলেও নাইক্ষ্যংছড়িতে বিএটি উদ্যোগে এ প্লান্ট স্থাপনটা পার্বত্যঞ্চলের জন্য এই প্রথম।২২ জুলাই (বুধবার) বেলা সাড়ে ১২টায় নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদ বাউন্ডারী সংলগ্ন বৃট্রিশ আমেরিকান ট্যোবাকোর (বিএটি) এর অর্থায়নে প্রায় ১৫ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট উদ্বোধনে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন চট্রগ্রাম ডিভিশনাল লীফ ম্যানেজার (বিএটিবি) মামুনুর রশিদ। চট্রগ্রাম দক্ষিণ রিজিওনাল লীফ ম্যানেজার,( বিএটিবি) দেওয়ান অামিনুল ইসলাম নাসিম। নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যন ও উপজেলা অাওয়ামী লীগ সভাপতি অধ্যাপক মো: শফিউল্লাহ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া অাফরিন কচি, নাইক্ষ্যংছড়ি এরিয়া ব্যবস্হাপক রফিকুল ইসলাম, উপজেলে ভাইস চেয়ারম্যান মংহ্লাওয়ে মার্মা,প্রেসক্লাব সভাপতি শামীম ইকবাল চৌধুরী, ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল অাবছার ইমনসহ বিএটিবির উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।জানাযায়, বৃট্রিশ আমেরিকান ট্যোবাকোর(বিএটি) প্রবাহ প্রকল্পের আওতায় সারাদেশে এটিসহ প্রায় ১১০টি ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট স্থাপন করা হয়েছে যা আর্সেনিক ও অন্যান্য ক্ষতিকর উপাদান পরিশোধিত করতে সক্ষম।এই ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট থেকে প্রতিদিন ১০ হাজার লিটার সুপিয় পানিতে প্রায় ২০০শ পরিবারের দৈনন্দিন চাহিদা মিটিয়ে উদ্বৃত্ত থাকবে বলে জানান নাইক্ষ্যংছড়ি এরিয়া ব্যবস্হাপক রফিকুল ইসলাম। এদিকে এই বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যন অধ্যাপক শফিউল্লাহ জানান, পাহাড়ি অঞ্চলের সুপের পানি জন্য সরকারের পাশাপাশি সামর্থবান প্রতিষ্টানগুলোকে এগিয়ে অাসতে হবে। তিনি আরও জানান পাহাড়ি অঞ্চলের সর্ব প্রথম বিশুদ্ধ খাবার পানি প্রকল্প নাইক্ষ্যংছড়িতে শুরু করে বিশুদ্ধ পানি সংকট দূর করেছেন বিএটিবি, এজন্য উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে বিএটিবি কে ধন্যবাদ জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here