মাঠের পারফরম্যান্সের পাশাপাশি স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনার আর্থিক বিষয়াদিও খুব ভালো অবস্থায় নেই। এর শুরু বেশ কয়েক মাস আগে থেকে। ক্লাবের এই দুঃসময়ে লিওনেল মেসি শৈশবের ক্লাবটির হয়ে ফ্রিতে খেলবেন বলে ভেবেছিলেন ক্লাব সভাপতি হুয়ান লাপোর্তা। অথচ মেসি কিনা শেষ পর্যন্ত পাড়ি জমালেন ফরাসি জায়ান্ট পিএসজিতে।

কাতালান রেডিও আরএসিওয়ানকে লাপোর্তা বলেন, আমি আশায় বুক বেধে রেখেছিলাম শেষ মিনিট পর্যন্ত। ভেবেছিলাম নাটকীয় কোনো কিছু ঘটবে আর মেসি বলে উঠবে আমি বার্সার হয়ে ফ্রিতে খেলতে চাই।


কিন্তু এর কিছুই হয়নি। ফ্রি ট্রান্সফারে আর্জেন্টাইন সুপারস্টার পাড়ি জমান পিএসজিতে। বিনিময়ে কানাকড়িও পায়নি বার্সেলোনা। মেসি বার্সা ছাড়ার আগে অনেকেও বলেছিলেন লাপোর্তার সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হয়ে গেছে মেসির। কিন্তু বার্সা সভাপতি বলেছেন, তাদের মধ্যে খুব ভালো সম্পর্ক ছিল। লাপোর্তা বলেন, আমাদের মধ্যে খুব ভালো সম্পর্ক ছিল। আমি জানতাম যে এই দুরবস্থা থেকে উত্তরণ ঘটলে তাকে আমরা সন্তোষজনক কিছু দিতে পারব।

মেসি পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পর প্যারিসে গেলে পার্ক দ্য প্রিন্সেস থেকে শুরু করে আইফেল টাওয়ার, এয়ারপোর্ট লোকে লোকারণ্য হয়ে যায়। সবার স্বপ্ন একনজর কাছ থেকে দেখতে চান খুদে এই ফুটবল জাদুকরকে।

ফ্রান্সের ফুটবলে প্রাধান্য থাকলেও ইউরোপে শ্রেষ্ঠত্বের আশায় দল আরও শক্তিশালী করছে পিএসজি। এই মৌসুমে তারা দলে টেনেছে সার্হিও রামোস, জানলুইজি ডোনারুম্মা, জর্জিনিয়ো উইনালডাম ও আশরাফ হাকিমির মতো তারকাদের। এর সঙ্গে মেসিকে যোগ করে ইউরোপীয় ফুটবলের সবচেয়ে শক্তিশালী স্কোয়াড বানিয়েছে তারা।
 

মেসির বার্সেলোনা অধ্যায় শেষ, কঠিন এই বাস্তবতাকে একরকম মেনেই নিয়েছিল সবাই। প্যারিসে এসে স্বপ্ন জয়ের দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন মেসি। দলটিকে সেরার কাতারে নিয়ে গিয়ে সমর্থকদের প্রত্যাশার প্রতিদান দিতে চান তিনি।

মেসি বলেন, আমি প্যারিসে আমার জীবনের নতুন অধ্যায়ের সূচনার অপেক্ষায় আছি। ক্লাব এবং আমার লক্ষ্য একই সুতায় গাঁথা। পার্ক দ্য প্রিন্সেসে নামার অপেক্ষা আর সহ্য হচ্ছে না। আমি জানি এখানে অনেক প্রতিভাবান ফুটবলার এবং স্টাফ রয়েছেন। আমি এমন কিছু করার ব্যাপারে প্রত্যয়ী, যা ক্লাবটিকে সেরার কাতারে নিয়ে যাবে এবং ফ্যানদের প্রত্যাশার প্রতিদান দিতে চাই।


পিএসজির সঙ্গে দুই বছরের চুক্তি করেছেন মেসি। এখন তিনি ফ্রান্সে ক্যারিয়ার শুরুর অপেক্ষায়। তাকে পেয়ে বেজায় খুশি ক্লাব প্রেসিডেন্ট নাসের আল খেলাইফিও। তিনি জানিয়েছেন, মেসির পিএসজিতে আসা ক্লাব ইতিহাসে সবচেয়ে সফল দলবদল। তিনি বলেন, আমি খুবই খুশি যে মেসি পিএসজিতে যোগ দিতে রাজি হয়েছেন।

তিনি তার নিজের ইচ্ছার কিছুই লুকায়নি। ক্লাবকে সবার ওপরে নিয়ে যাওয়া, সব ট্রফি জেতা এবং যা আমাদেরও লক্ষ্য। লিও যোগ দেওয়ায় আমাদের স্কোয়াড আরও শক্ত হয়েছে। এবার আমরা সফল দলবদল সম্পন্ন করেছি। আর দলের নেতৃত্বে রয়েছেন অসাধারণ একজন কোচ। আশা করি সবাই মিলে নতুন ইতিহাস রচনা করবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here