প্যারিসে স্থায়ী আবাস পাওয়ার আগ পর্যন্ত পরিবার নিয়ে বিলাস বহুল হোটেলেই থাকছেন লিওনেল মেসি। এক রাতেই মেসিকে গুনতে হচ্ছে ১৭ হাজার পাউন্ড, বাংলাদেশি টাকায় যার পরিমাণ দাঁড়ায় ১৯ লাখ ৯৩ হাজার ৯০৯ টাকা। কিন্তু সেই হোটেলেই ঘটল ডাকাতির ঘটনা। দিনদুপুরে তাণ্ডব চালাল ডাকাত দল।

স্থানীয় সময় বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ঘটেছে এ ঘটনা। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, দুই মুখোশধারী দেওয়াল বেয়েই হোটেলের খোলা বারান্দায় নেমে পড়ে। তারপরই ভাঙচুর চালায় হোটেলে।

ওই রাতে, ফ্রান্সের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের মেটজে পিএসজির একটি অ্যাওয়ে ম্যাচ ছিল। কিন্তু মেসি আগের খেলায় চোট পেয়ে নিজের রুমেই ছিলেন। এ ঘটনায় স্বাভাবিকভাবেই মেসি ও তার পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত অনুরাগীরা।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে জানা গেছে, কয়েক হাজার পাউন্ড এবং সোনার গয়না নিয়ে গেছে ডাকাতরা। হোটেলের একাধিক অতিথি তাদের মূল্যবান সম্পদ হারিয়েছেন। তবে এ ঘটনায় মেসি এবং তার পরিবারের সদস্যরা অক্ষত রয়েছেন। স্বাভাবিকভাবেই হোটেলের নিরাপত্তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন।

হোটেল কর্তৃপক্ষের দাবি, মেসি আসার পর হোটেলের নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। তারপরও এই ধরনের ঘটনা অপ্রত্যাশিত।

আরও পড়ুন: হাসপাতাল ছাড়লেন পেলে

কাতালুনিয়ায় দীর্ঘ ক্যারিয়ারের পর বার্সেলোনা ছাড়েন মেসি। এর আগে পেশাদার ফুটবলার হিসেবে তাকে আর স্থানান্তরিত হতে হয়নি। গত মাসে পিএসজির সঙ্গে দুই বছরের চুক্তি করেন আর্জেন্টাইন খুদে জাদুকর। স্থায়ী আবাস পাওয়ার আগ পর্যন্ত হোটেলেই থাকছেন এলএম থার্টি। এ জন্য তাকে গুনতে হচ্ছে মোটা অঙ্কের অর্থ।

তবে সম্প্রতি জানা গেছে, পরিবার নিয়ে বসবাসের জন্যে ইতোমধ্যেই প্যারিসে একটি বাড়ি খুঁজে পেয়েছেন মেসি। এটি প্যারিসের বিশেষ অঞ্চল নিউইলি-সুর-সাইনে অবস্থিত। এ জন্য প্রতি মাসে গুনতে হবে ২০ হাজার ইউরো। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ২০ লাখ টাকা। তবে আপাতত তিনি হোটেলেই আছেন।

পিএসজিতে এসে মেসি পেয়েছেন নিজ দেশের অনেককে। দলটির কোচ হিসেবে আছেন মাউরিসিও পচেত্তিনো, মিডফিল্ডার অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া, লিয়ান্দ্রো প্যারাদেস, মাউরো ইকার্দিওরা। এবার তার প্রতিবেশী হবেন- অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া এবং লিয়েনড্রো প্যারেডেস। মেসিও তাই পিএসজিতে নিজেকে সুখী ভাবতেই পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here