ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) মুস্তাফিজ ঝলকের পরও রাজস্থান রয়্যালসকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। নির্ধারিত ২০ ওভারে রাজস্থান রয়্যালসের ১৪৯ রানের জবাবে ১৭ বল হাতে রেখেই ৭ উইকেটের জয় পায় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু।

১৫০ রানের টার্গেট দিয়ে রাজস্থানকে জেতাতে পারেনি সাঞ্জু সামসনরা। মুস্তাফিজ ২ উইকেট নিলেও ১৭ বল বাকি থাকতেই ৭ উইকেটে জিতে গেল কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। বেঙ্গালুরু জয়ে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ৩০ বলে ৫০ রান, শ্রিকর ভারত ৪৪, বিরাট কোহলি ২৫ ও দেবদূত ২২ রান করেন। রাজস্থানের হয়ে ২০ রান খরচায় দুই উইকেট নেন মুস্তাফিজ।

 
 
এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে রাজস্থানের দুই ওপেনার যশ্বসী জাইসওয়াল ও এভিন লুইস উড়ন্ত সূচনা করেন। উদ্বোধনী জুটিতেই আসে ৭৭ রান। জাইসওয়াল ৩১ রান করে ড্যান ক্রিস্টিয়ানের শিকার হলেও ঝড়ো ব্যাটিং চালিয়ে যেতে থাকেন লুইস। তবে বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকা হয়নি ক্যারিবীয় হার্ডহিটার ব্যাটসম্যানের। অভিষিক্ত জর্জ গারটনের বলে শ্রিকর ভারতকে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন তিনি। এরপর রাজস্থানের অধিনায়ক সাঞ্জু সামসন আউট হলে মুখ থুবরে পড়ে দলের ইনিংস। এভিন লুইস ৩৭ বলে করেন ৫৮ রান, সামসনের ব্যাট থেকে ১৫ বলে আসে ১৯ রান।

মহিপাল লমরোর, রাহুল তেওয়াটিয়ারা এসে ব্যাটই ধরতে পারেননি। লমরোর ৩ রানে চাহাল ও তেওয়াটিয়া ২ রানে শাহবাজ আহমেদের শিকার হন। লিয়াম লিভিংস্টোন আউট হন ৬ রান করে। শেষ দিকে ক্রিস মরিসের ১১ বলে ১৪ ও রায়ান পরাগের ৯ রানে ভর করে ১৪৯ রানে পৌঁছায় রাজস্থান। বেঙ্গালুরুর হয়ে হার্শাল প্যাটেল নেন তিন উইকেট। দুটি করে উইকেট পান শাহবাজ ও চাহাল।

এ ম্যাচটা রাজস্থানের জন্য চ্যালেঞ্জের। সবশেষ দুই ম্যাচে কোনো জয় নেই রাজস্থানের। ২৫ সেপ্টেম্বর দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে ৩৩ রানে হারার পর মুস্তাফিজরা ২৭ সেপ্টেম্বর ৭ উইকেটে হেরেছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে। অন্যদিকে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু দুই ম্যাচে হারের পর সবশেষ ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে হারিয়েছে ৫৪ রানের ব্যবধানে। সে হিসেবে আত্মবিশ্বাসের দিকে রাজস্থানের তুলনায় কোহলির দল এগিয়েই থাকবে।

 
১১ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তিনে আছে বিরাট কোহলির দল। মুস্তাফিজদের রাজস্থান সমানসংখ্যক ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে আছে টেবিলের সপ্তম স্থানে।

এ ম্যাচের আগে অতীত ইতিহাসে  ২৪ ম্যাচে ১১ জয় নিয়ে এগিয়ে ছিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। রাজস্থানের জয় ১০ ম্যাচে। ৩টি ম্যাচে কোনো ফলাফল হয়নি। সে ক্ষেত্রে এই ম্যাচে রাজস্থান জয় পেলে বেঙ্গালুরুর সঙ্গে জয়ের হিসাবে ভারসাম্যে আসত সাঞ্জু সামসন বাহিনী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here