আফগানিস্তানের সশস্ত্র গোষ্ঠী তালেবান জানিয়েছে, দেশটির উগ্র জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট খোরাসান( আইএসকে) এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য এবং প্রধান নেতা আবু ওমর খোরাসানি নিহত হয়েছে।

তালেবানের বরাত দিয়ে মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল-মায়াদিন এবং পাকিস্তানের সংবাদ মাধ্যম সামা টিভি এ তথ্য জানিয়েছে। আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে শনিবার( ২৪ সেপ্টেম্বর) তালেবান কর্মকর্তারা জানান, আবু ওমর খোরাসানি আফগানিস্তানে নিহত হয়েছে।

 
তবে খোরাসানি কবে, কোথায় ও কীভাবে নিহত হয়েছেন সে সম্পর্কে কিছু জানায়নি তালেবান। এদিকে পাকিস্তানের সামা টিভি এবং ডেইলি পাকিস্তান জানায়, ১৫ আগস্ট আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। 
 
তার এক দিন পর ১৬ আগস্ট আইএস খোরাসানের প্রধান আবু ওমর খোরাসানির শিরশ্ছেদ করে তারা। মৌলভি জিয়াউল হক নামে পরিচিতি খোরাসানিকে আফগান সরকারের কারাগার থেকে নিয়ে হত্যা করে তালেবান যোদ্ধারা।
 
শিরশ্ছেদের পর তার মরদেহের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয় তালেবান সদস্যরা। এর এক মাস পরে তালেবান খোরাসানির নিহতে খবর ঘোষণা করলো।
 
ইসলামি খেলাফত প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গত দশকের মাঝামাঝি সময় থেকে সিরিয়া ও ইরাকসহ বিভিন্ন দেশে যুদ্ধপরাধ চালিয়ে আসছে চরম উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আইএস। 
 
এবার তালেবানও আফগানিস্তানে ইসলামি শাসনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে চায় বলে ঘোষণা করলেও তালেবানের বিরুদ্ধে সম্প্রতি রক্তক্ষয়ী হামলা শুরু করে তারা।
 
১৫ আগস্ট কাবুলের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করে তালেবান। তারপর থেকে রাজধানী কাবুল ও নানগারহারে আইএসের সন্ত্রাসী হামলা বেড়ে গিয়েছে। বিশেষ করে নানগারহার প্রদেশে গত কয়েকদিনে বেশ কিছু সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে  আইএস।
 
এসব হামলায় অন্তত ২০ তালেবান সদস্যসহ অসংখ্য বেসামরিক নাগরিক হতাহত হয়েছেন। তালেবান দাবি করেছে, আফগানিস্তানের জন্য আইএস এখন মারাত্মক কোনো হুমকি নয় বরং এই গোষ্ঠীকে শিগগিরই নির্মূল করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here