ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সলিমুল্লাহ মুসলিম হলের ভবনের বারান্দায় ফাটল দেখা দিয়েছে। ভবনে ফাটল দেখা দেওয়ায় আতঙ্কে রয়েছে ওই হলের শিক্ষার্থীরা।

তবে, ভবনের যে পাশে ফাটল দেখা দিয়েছে সেই পাশে আর শিক্ষার্থী থাকতে পারবে না। ফাটল দেখা দেওয়ার পর পরই বিষয়টি নিয়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে হল কর্তৃপক্ষ। আগামী ৭ অক্টোবরের মধ্যে ভবনের ওই পাশে থাকা শিক্ষার্থীদের খাট, বিছানা ইত্যাদি সরিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাকালীন হলগুলোর মধ্যে সলিমুল্লাহ মুসলিম হল অন্যতম। হলটি পুরাতন হওয়ায় এর আগেও হলের বেশকিছু জায়গায় ফাটল দেখা দিয়েছে।
তবে, সেই ফাটলগুলো এখন বড় আকার ধারণ করছে। যার কারণে যেকোন সময় ঘটতে পারে দুর্ঘটনা।
এদিকে, এ নিয়ে আতঙ্কে রয়েছে শিক্ষার্থীরা। আগামী মাসের শুরুতে শিক্ষার্থীরা হলে উঠবে।
বিষয়টি নিয়ে হলের শিক্ষার্থী মাহাদী হাসান বলেন, আমাদের হলটি অনেক পুরাতন। ভবনের অনেক জায়গায় ফাটল রয়েছে। এখন এই ফাটল বড় হচ্ছে। আমরা খুবই আতঙ্কিত যে কোন দুর্ঘটনা না ঘটে।

তবে, বিষয়টি বেশ গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন হল প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক মজিবুর রহমান।
তিনি সময় সংবাদকে বলেন, ফাটল আগেও ছিল এগুলো ধীরে ধীরে বড় হচ্ছে। অনেক পুরাতন বিল্ডিং, লোড নেওয়ার ক্যাপাসিটি এখন নাই। ভবন এখনই ভাঙতে হবে না তবে ওই অংশে শিক্ষার্থী থাকতে পারবে না। ভবনের ওই অংশে লোড নেওয়ার ক্ষমতা নাই।
এর আগেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভবন ধ্বসের ঘটনা ঘটেছে। ১৯৮৫ সালের ১৫ অক্টোবরের ওই ভবন ধ্বসের ঘটনায় ৪০ জন মারা গিয়েছিল।

মোতাহার/

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here