চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে ছাড়িয়ে সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা লিওনেল মেসি। পেছনে ফেলেছেন নেইমার ও এমবাপ্পেসহ অন্যদেরও।

বিশ্বজুড়ে ফুটবলভক্তদের কাছে জনপ্রিয় ‘ফিফা ভিডিও’ গেম। এমনকি ফুটবলাররাও অবসর সময়ে এই গেম খেলে সময় কাটান। বছরজুড়ে গেমটির নতুন এডিশন বা সংস্করণের জন্য অপেক্ষায় থাকেন সবাই।


এদিকে, নতুন সিজন শুরুর আগে গেমটিতে সর্বোচ্চ রেটিংধারী খেলোয়াড়ের তালিকা প্রকাশ করা হয়ে থাকে। যথারীতি এ বছরও ফিফার ভিডিও গেমে সর্বোচ্চ রেটিং নিয়ে শীর্ষে আছেন পিএসজির তারকা লিওনেল মেসি।

চলতি বছরে ফুটবলের এই মহাবিস্ময়ের রেটিং ৯৩। এছাড়া দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ তারকা রবার্ট লিওনডস্কি। যার রেটিং ৯২।

অন্যদিকে, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ৯১ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে আছেন। তালিকায়, ম্যানচেস্টার সিটির মিডফিল্ডার কেভিন ডি ব্রুইন চতুর্থ এবং পিএসজিতে মেসির সতীর্থ কিলিয়ান এমবাপ্পে পঞ্চম এবং নেইমার ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছেন। 


এদিকে, এ বছরের চলতি সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত বিশ্ব ফুটবলে সেরা পাঁচ গোলমেশিন মেসি, রোনালদো, লিওনডস্কি, হালান্ড, এমবাপ্পে অসংখ্য স্মরণীয় মুহূর্ত উপহার দিয়েছেন ক্লাব ও জাতীয় দলের হয়ে। যারা বছরের সর্বোচ্চ গোলদাতার দৌড়েও ভালোমতোই টক্কর দিচ্ছেন একে অপরকে।

যদিও এবারের মৌসুমে মেসি-রোনালদোকে ছাপিয়ে গোলের দৌড়ে এখন পর্যন্ত শীর্ষে আছেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ তারকা ফুটবলার রবার্ট লিওনডস্কি। চলতি বছরে সর্বোচ্চ ৪৫ বার প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠিয়েছেন তিনি।

বুন্দেসলিগার নতুন মৌসুমেও গোলচাকা অব্যাহত আছে পোলিশ এই তারকার, প্রথম চার ম্যাচে এখন পর্যন্ত করেছেন ছয়টি গোল। এছাড়া পোল্যান্ডের হয়ে বিশ্বকাপ বাছাইয়েও একাধিক গোলের দেখা পেয়েছেন। পরের নামটি বুন্দেসলিগারই আরেক ক্লাব বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের নরওয়েজিয়ান সেনসেশন আর্লিও হালান্ডের। নরওয়ে ও বরুশিয়ার হয়ে ৩৮ গোল করে তালিকায় দুইয়ে আছেন তিনি। ২১ বছর বয়সী এই তারকা লিগের নতুন মৌসুমের সবশেষ চার ম্যাচেও পাঁচ গোল করেছেন।

তালিকার তিনে অবস্থান লিওনেল মেসির। বার্সেলোনায় সোনালি সময় পার করে পিএসজিতে গেছেন ক’দিন আগেই। বার্সায় থাকতে গোলবন্যায় ভাসালেও নতুন ক্লাবের হয়ে এ পর্যন্ত এক ম্যাচে মাঠে নামলেও খেলেছেন অর্ধেক সময়েরও কম। আর তাই গোলেরও দেখা পাননি। তবে লাতিন আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে বলিভিয়ার বিপক্ষে আর্জেন্টিনার হয়ে শেষ ম্যাচে করেছেন হ্যাটট্রিক। এছাড়া এখন পর্যন্ত ক্লাব ও আলবিসেলেস্তেদের জার্সিতে ৩৬ গোল করেছেন।

মেসির পরেই অবস্থান পিএসজি সতীর্থ ও ফরাসি ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপ্পের। ক্লাব ও জাতীয় দলের হয়ে ৩৩ গোল করে নিজেকে ছাড়িয়ে যাচ্ছেন ফরাসিদের বিশ্বকাপজয়ী এই সেনসেশন। 

সবশেষ অর্থাৎ পাঁচে অবস্থান পর্তুগিজ তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর। য়্যুভেন্তাস থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে ফিরে দ্বিতীয় অভিষেকে জোড়া গোল করে রাজকীয় প্রত্যাবর্তন হয়েছে। এছাড়া পর্তুগালের বিশ্বকাপ বাছাইয়েও প্রতিম্যাচেই গোলের দেখা পাচ্ছেন । সবমিলিয়ে এ বছর ক্লাব ও জাতীয় দল জার্সিতে সিআর সেভেনের পাশে জমা হয়েছে ৩১ গোল।

সূত্র -মার্কা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here