ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইন অনুসারে বিজ্ঞাপনসহ কোনো বিদেশি চ্যানেল বাংলাদেশে সম্প্রচার করা যাবে না জানিয়ে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ১ অক্টোবর থেকে বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন প্রচার হলে দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ছাড়া, বিদেশি শিল্পী দিয়ে বিজ্ঞাপন নির্মাণ করা হলে এবং তা কোনো টেলিভিশনে প্রচার করা হলে সরকারকে নির্ধারিত ফি প্রদান করতে হবে। রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) সকালে ভারত সফরের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ার আগে নিজ বাসায় সাংবাদিকদের এ কথা বলেন ড. হাছান মাহমুদ।

ভারতীয় বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলসহ বিদেশি চ্যানেল বাংলাদেশে সম্প্রচার করতে হলে আইন অনুসারে বিজ্ঞাপনমুক্ত বা ক্লিন ফিড সম্প্রচারের কথা থাকলেও কোনো ধরনের অনুমতি ছাড়াই বিজ্ঞাপনসহ সম্প্রচার হচ্ছে এই বিদেশি চ্যানেলগুলো। এর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে দেশীয় টিভি চ্যানেলগুলো।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বিদেশি চ্যানেলে ক্লিন ফিড সম্প্রচার না হলে ১ অক্টোবর থেকে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি আরও বলেন, বিদেশি শিল্পী দিয়ে বিজ্ঞাপন নির্মাণ করা হলে প্রতি শিল্পীর জন্য দুই লাখ টাকা এবং তা কোনো টেলিভিশনে প্রচার করা হলে ২০ হাজার টাকা সরকারকে নির্ধারিত ফি হিসাবে প্রদান করতে হবে।

মন্ত্রী জানান, ভারত সফরকালে সে দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকেও বাংলাদেশের এই পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়টি তুলে ধরা হবে।

আরও পড়ুন: বিএনপিকে সুস্থধারার রাজনীতিতে ফিরে আসার আহ্বান তথ্যমন্ত্রীর

ভারতীয় টিভি চ্যানেল জি বাংলা, স্টার জলসা ও স্টার প্লাসসহ অন্যান্য বিদেশি চ্যানেল বাংলাদেশে সম্প্রচার করতে হলে ‘ক্লিন ফিড’ বা মূল ভিডিও পাঠাতে হবে বলে এর আগেই জানিয়েছিলেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী। এবার ১ অক্টোবর থেকেই দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান তিনি।

ক্লিন ফিড ছাড়া বিদেশি চ্যানেলগুলো আর সম্প্রচার করতে দেবে না সরকার। সেদিক থেকে জি বাংলা, স্টার জলসা ও স্টার প্লাসসহ অন্যান্য বিদেশি চ্যানেল ‘ক্লিন ফিড’ না পাঠালে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের পর বাংলাদেশে সম্প্রচার করতে পারবে না।

ক্যাবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক পরিচালনা আইনে বিদেশি কোনো চ্যানেলের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন সম্প্রচার বা সঞ্চালন করলে লাইসেন্স বাতিল এবং দুই বছরের কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডের বিধান রয়েছে। আইন অনুযায়ী দেশি নয়, কোনো ধরনের বিজ্ঞাপনই বিদেশি চ্যানেলে প্রদর্শন করতে পারে না।

টেলিভিশন প্রযুক্তিতে ‘ক্লিন ফিড’ বলতে মূল ভিডিও সিগন্যালকে বোঝায়। পরবর্তীতে এই ভিডিও গ্রাফিকস এবং টেক্সট যুক্ত করা হয়। চ্যানেল কর্তৃপক্ষ প্রয়োজন অনুযায়ী ফিডের মাঝে মাঝে বিজ্ঞাপনের ক্লিপ যুক্ত করে। বাংলাদেশে বিদেশি চ্যানেলগুলো কোনো ধরনের অনুমতি ছাড়াই এই বিজ্ঞাপন বা অন্যান্য প্রচারণাসহ সম্প্রচার হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here