শুরু হয়ে গেছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের দামামা। শীর্ষ লিগগুলোর মধ্যে প্রায় সবকটিই এখন পর্যন্ত মাঠে গড়িয়েছে। বাকি আছে কেবল ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে জনপ্রিয় টুর্নামেন্ট উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। এবার অপেক্ষা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ড্রয়ের।

বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) তুরস্কের ইস্তানবুলে বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় শুরু হচ্ছে ড্র অনুষ্ঠান, যা সরাসরি দেখাবে সনি টেন ২ চ্যানেল।


৩২টি দলকে চারটি পটে রেখে ড্র অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিটি পটে থাকবে আটটি করে দল। ৩২টি দল হলো- চেলসি, ম্যানচেস্টার সিটি, লিভারপুল, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা, অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ, সেভিয়া, ভিয়ারিয়াল, বায়ার্ন মিউনিখ, আরবি লাইপজিগ, বরুশিয়া ডর্টমুন্ড, উলফবার্গ, য়্যুভেন্তাস, এসি মিলান, ইন্টার মিলান, আটালান্টা, পিএসজি, লিলে, স্পোর্টিং লিসবন, পোর্তো, জেনিত সেন্ট পিটার্সবার্গ, ক্লাব ব্রুগ, আয়াক্স, বেসিকতাস, বেনফিকা, দিনামো কিয়েভ, মালমো, রেড বুল সালসবুর্গ, শাখতার, শেরিফ, ইয়ং বয়েজ। 

এর মধ্যে ভিয়ারিয়াল সুযোগ পেয়েছে উয়েফা ইউরোপা লিগ জেতার সুবাদে। টুর্নামেন্টটির গত মৌসুমে ইংল্যান্ডের সবচেয়ে ঐতিহ্যবাহী ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে ফাইনালে হারিয়েছিল তারা। ভিয়ারিয়ালের কোচ হিসেবে তা ছিল উনাই এমেরির প্রথম ইউরোপা লিগের ট্রফি। কিন্তু এমেরির জন্য সেটি ছিল চতুর্থ ইউরোপা লিগ বিজয়।

এবারের আসরে গ্রুপ পর্বের জন্য সবচেয়ে বেশি ক্লাব আছে স্পেন থেকে, ৫টি। চারটি করে ক্লাব রয়েছে ইংল্যান্ড, ইতালি ও জার্মানি থেকে। পর্তুগাল থেকে আছে তিনটি দল, ফ্রান্স ও ইউক্রেন থেকে আছে দুটি করে দল। আর আটটি দেশ থেকে সুযপোগ পেয়েছে একটি করে দল।

এক নম্বর পটে আছে বায়ার্ন মিউনিখ, ম্যানচেস্টার সিটি, অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ, চেলসি, ভিয়ারিয়াল, ইন্টার মিলান, স্পোর্টিং লিসবন, ও লিলে।

দুই নম্বর পটে আছে রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা, য়্যুভেন্তাস, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, পিএসজি, লিভারপুল, সেভিয়া ও বরুশিয়া ডর্টমুন্ড।

তিন নম্বর পটে আছে পোর্তো, আয়াক্স, শাখতার, আরবি লাইপজিগ, সালসবুর্গ, বেনফিকা, আটালান্টা ও পিটার্সবার্গ।

চার নম্বর পটে আছে বেসিকতাস, দিনামো কিয়েভ, ক্লাব ব্রুগ, ইয়ং বয়েজ, এসি মিলান, মালমো, উলফবার্গ ও শেরিফ তিরাসপোল

টুর্নামেন্টের গ্রুপ পর্বের খেলা শুরু হবে ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে। আর গ্রুপ পর্বের খেলা শেষ হবে ৮ ডিসেম্বর। যার ফাইনাল হবে আগামী বছরের ২৮ মে, রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গ স্টেডিয়ামে। ইউরোপা লিগের ফাইনাল মাঠে গড়াবে ১৮ মে, স্পেনের সেভিয়ায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here