সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পদ্মাসেতুর পিলারে বারবার ফেরির ধাক্কা লাগার বিষয়ে কোনো ষড়যন্ত্র আছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে হবে। এই সেতু এখন পুরো জাতির সম্পদ, জাতীয়ভাবে মানুষ আহত হয়েছে এবং মানুষের অনুভূতিতে আঘাত লেগেছে।

তিনি বলেন, পদ্মা সেতুতে ফেরির ধাক্কাকে তুচ্ছ কোনো ঘটনা ও নিছক কোনো দুর্ঘটনা অথবা চালকের অদক্ষতা বলে এড়িয়ে যাওয়া ভুল হবে। সেনাবাহিনীকে বলব, এ ব্যাপারে গভীরভাবে তদারকি করা দরকার। এখানে শষ্যের মধ্যে ভূত আছে কিনা তাও গভীরভাবে খতিয়ে দেখা হবে।

সেতুতে বারবার ফেরি ধাক্কার ঘটনায় শুক্রবার (১৩ আগস্ট) বিকেলে পদ্মা সেতুর মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে পরিদর্শনে এসে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।
শিমুলিয়া বা বাংলাবাজার যে কোনো একটি ঘাট স্থানান্তরের ব্যাপারেও সংশ্লিষ্ট কমিটি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সবগুলো বিষয় নিয়েই সন্ধ্যায় সংশ্লিষ্ট কমিটির সভা থেকে সিদ্ধান্ত হবে।

মন্ত্রী বলেন বলেন, পদ্মাসেতু নিয়ে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে। এখনও এর পেছনে অনেক লোক লেগে আছে। দেশ বিদেশ থেকেও লেগে আছে। বারবার কেন ঘটছে ধাক্কার ঘটনা। পদ্মা সেতু এখন জাতীয় সম্পদ। সারা দেশের মানুষের অনুভূতিতে আঘাত আসে। সেতুটি গোটা জাতির সম্পদ। জাতীয়ভাবে মানুষ আহত হচ্ছে। এভাবে কেন বারেবারে পদ্মাসেতুতে আঘাত লাগছে এরজন্য শুক্রবার সন্ধ্যায় সভাটি হবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, স্বপ্নের পদ্মাসেতুর মূল অগ্রগতি ৯৪ দশমিক দুই পাঁচ ভাগ, আর্থিক অগ্রগতি ৯০ দশমিক আঠারো ভাগ এবং সার্বিক অগ্রগতি ৮৭ দশমিক দুই পাঁচ ভাগ।
সেতু মন্ত্রীর পরিদর্শনকালে আরও উপস্থিত ছিলেন সেতু বিভাগের সচিব মো. আবু বক্কর ছিদ্দিক, পদ্মা সেতুর প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম, বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক, বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান সৈয়দ তাজুল ইসলাম,মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক কাজী নাহীদ রসুল, পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন, পদ্মা সেতুর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ৯৯ কম্পোজিট বিগ্রেডের  কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল কামরুল হাসান,বিআইডব্লিউটিসির পরিচালক বানিজ্য আসিকুজ্জামান প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here