আইসিসির জুলাই মাসের সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান। বুধবার (১১ আগস্ট) এক বিবৃতিতে তার নাম ঘোষণা করেছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। সাকিবের সঙ্গে তিন জনের সংক্ষিপ্ত তালিকায় স্থান পাওয়া অন্য দুজন ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার মিচেল মার্শ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওয়ালশ জুনিয়র। মেয়েদের বিভাগে মাসসেরা হয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্টেফানি টেইলর।

জুলাই মাসে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও সমান সংখ্যাক টি-টোয়েন্টি ম্যাচে সাকিব বাংলাদেশের জার্সিতে দুর্দান্ত খেলেছেন। ওয়ানডে সিরিজে তিনি ব্যাট হাতে করেন ১৪৫ রান। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে সাকিব শিকার করেন তিন উইকেট। আর একমাত্র টেস্টে ৫ উইকেট নেন তিনি, বাংলাদেশ জয়লাভ করে ২২০ রানের বড় ব্যবধানে।

মাস সেরা হওয়ার পর আইসিসিকে সাকিব বলেছেন, আইসিসির জুলাই মাসের সেরা ক্রিকেটার হওয়ায় আমি অনেক সন্তুষ্ট। জুলাইয়ে আরও অনেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার দুর্দান্ত খেলেছেন। তাই এই পুরস্কারটা আমার জন্য বিশেষ কিছু।

তিনি আরও বলেন, যখন আমি দেশের জয়ে ভালো অবদান রাখি তখন এটা আমাকে দারুণ তৃপ্তি দেয়। বিগত কয়েক সপ্তাহে বাংলাদেশের ভালো কিছু অর্জনে সহায়তা করতে পেরে আমি অনেক খুশি।

শুধু আইসিসির মাসসেরাই না, বুধবার সাকিব আরও একটি সুখবর পেয়েছেন। একই দিন তিনি টি-টোয়েন্টির সেরা অলরাউন্ডার র‌্যাংকিংয়েও শীর্ষে স্থান পেয়েছেন। ধারাবাহিক পারফরম্যান্স সবাইকে ছাড়িয়ে শীর্ষস্থানে দখল করেছেন সাকিব। আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবীকে সরিয়ে এক নম্বরে উঠে গেছেন তিনি। সাকিবের রেটিং পয়েন্ট এখন ২৮৬। তার চেয়ে এক পয়েন্ট কম নিয়ে তালিকার দুই নম্বরে আছেন নবী।

মেয়েদের বিভাগে মাসসেরা হওয়া স্টেফানি টেইলর জুলাইয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে চার ওয়ানডে ম্যাচে ১৭৫ রান করেন। পাশাপাশি তিনি শিকার করেন তিন উইকেটও। টি-টোয়েন্টিতেও স্টেফানি চার উইকেট শিকার করেন।

মাস সেরা হওয়ার পর তার বক্তব্য, এটা আমার কাছে অবাক করা জিনিস। জুলাই মাসের জন্য আইসিসির সেরা খেলোয়াড় হলাম। আমি খুশি। এটা প্রমাণ করে যে, কঠিন পরিশ্রম করলে তার ফল মেলে। পাকিস্তানের বিপক্ষে আমি তাই করতে পেরেছি, আমার দলও জয় পেয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here