রুপম পান্থ, পটিয়া প্রতিনিধি ঃ-পটিয়া উপজেলায় এক পাষন্ড পিতা তার দুই মেয়েকে গলাটিপে হত্যা করে নিজে বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। আজ বুধবার (১জুলাই) কাশিয়াইশ ইউনিয়নের ভান্ডারগাঁও বড়ুয়া পাড়ায় ভোর রাতে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- মুকুন্দ বড়ুয়ার মেয়ে টুকু বড়ুয়া (১৪) ও নিশি বড়ুয়া (১০)। তারা স্থানীয় একটি স্কুলের অষ্টম ও চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দুই মেয়েকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে মুকুন্দও নিজে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে, হতাশা থেকে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। খবর পেয়ে পটিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে হত্যাকারী পিতা মুকুন্দ বড়ুয়াকে গ্রেফতার করেছে এবং লাশ দু’টি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন। স্থানীয় ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. ইউসুফ জানিয়েছেন, মুকুন্দ বড়ুয়ার স্ত্রী মারা যায় ৪বছর আগে। অভারের সংসারে দুই কন্যা সন্তান নিয়ে কষ্ট পড়েন। তবে কি কারণে দুই কন্যা সন্তানকে হত্যা করেছে তা জানা সম্ভব হয়নি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ হত্যাকারী পিতা মুকুন্দ বড়ুয়াকে গ্রেফতার করেছে। পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিন পার্বত্যবাণীকে বলেন, দুই মেয়ের লাশ উদ্ধারের পাশাপাশি মুকুন্দ বড়ুয়াকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মামলা দায়েরের প্রস্ততি চলছে।

Rupam Pantha

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here