রাজধানীর মতিঝিলে একটি হোটেল থেকে মো. রাকিব নামের এক যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের বাড়ি পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া থানার বড়হারজি গ্রামে। তার বাবার নাম মো. হিমু।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টায় তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের চাচা নিজামুদ্দিন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আমার ভাতিজা কয়েকদিন আগে রাগ করে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। বাড়ি থেকে ফোন দিলে সে কোথায় আছে তা বলত না। সকালে খবর পেলাম মতিঝিলের একটি হোটেল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মতিঝিল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জহুরুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে জানান, সকাল সাড়ে ১০টায় ফকিরাপুল কাঁচাবাজারে নিউ মিতালী হোটেল থেকে আমাদের খবর দেওয়া হয়। দ্রুত আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে গলায় গামছা পেঁচানো অবস্থায় ওই যুবককে উদ্ধার করি। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেলে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এসআই আরও জানান, গত ২৬ জুলাই সে এই হোটেলে রুম ভাড়া নেয়। হোটেলের ৪০৪ নম্বর রুমে সে থাকত। সকালে তার রুমের দরজা বন্ধ পায় হোটেল কর্তৃপক্ষ। পরে আমাদের খবর দেয়। পরিবার জানিয়েছে, ৭-৮ দিন আগে পরিবারের সঙ্গে রাগ করে সে ঢাকায় এসেছে।

ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া বলেন, মতিঝিল থেকে একজনকে অচেতন অবস্থায় ঢামেকে আনা হয়। পরে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here