ঈদের চতুর্থ দিনে শনিবার (২৪ জুলাই) রাজধানীসহ সারা দেশের বেশ কিছু জায়গায় বৃষ্টি হয়েছে। সকাল থেকেই আকাশ কিছুটা মেঘলা ছিল। বেলা ১১টার দিকে রাজধানীতে শুরু হয় মুষলধারে বৃষ্টি। ফলে বৃষ্টি আর বিধিনিষেধে এদিন রাজধানীর ব্যস্ত সড়কগুলো অনেকটাই ফাঁকা হয়ে যায়। ভোগান্তিতে পড়েন পথে বের হওয়া মানুষ।

 

অবশ্য আবহাওয়া অধিদপ্তরও বৃষ্টির আভাস দিয়েছে। বলছে, ৮ বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়ই  দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। আগামী তিন দিনে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে বলেও জানানো হয়েছে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে।

শনিবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, খুলনা, বরিশাল, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও রাজশাহী বিভাগের অধিকাংশ অনেক জায়গায় এবং রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

সেইসঙ্গে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরণের ভারী বৃষ্টি হতে পারে। শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে শনিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে চট্টগ্রামের সন্দীপে। সেখানে ৮৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

সারা দেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে শনিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল নীলফারীর সৈয়দপুরে, ৩৪ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল কক্সবাজারের টেকনাফে, ২৪ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া বিভাগ আরও জানিয়েছে, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপটি এখন ভারতীয় স্থলভাগে অবস্থান করছে। সুস্পষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে বাংলাদেশে বৃষ্টি হচ্ছে। একই সঙ্গে শনিবারও সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত বহাল রেখেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

 

  • somoy

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here