অপরাজেয়, অপ্রতিরোধ্য ইতালি। তাদের জয়রথ থামাতে পারলো না ফিফা র‌্যাংকিংয়ের এক নম্বর দল বেলজিয়ামও। লাল ঢেউয়ের উচ্ছ্বাস ম্লান করে নীল উৎসব ইতালির ফুটবল আকাশে। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে রেকর্ড টানা ৩২ ম্যাচ অপরাজিত রইলো ইতালি। থেমে গেল বেলজিয়ামের ইউরো যাত্রা। মিউনিখের আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে বেলজিয়ামের বিপক্ষে ২-১ গোলে জিতেছে ইতালি। 

ম্যাচের শুরুতেই স্পট লাইট ছিলো রেড ডেভিলদের দিকেই। আগের ম্যাচে ইনজুরির কারণে মাঠ ছাড়া ম্যান সিটির তারকা ডি ব্রুইনা এদিন ছিলেন দারুণ গতিময়। তার তীব্র শট দেবদূত হয়ে প্রতিহত করেন ইতালিয়ান জিয়ানলুইজি।  

বেলজিয়ামের আক্রমণ প্রতিহত করে প্রথমার্ধে দারুণ দুটি গোলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় ইতালি। ম্যাচের ৩১ মিনিটে লিড পায় ইতালি। ভেরাত্তির মাইনাস থেকে বল জালে জড়ান বেরাল্লা। বিরতিতে যাওয়ার আগে আরও একবার এগিয়ে যায় আজুজ্জিরা। এবার দলের ত্রাতা লরেঞ্জা ইনসিনে। বেরাল্লার অ্যাসিস্টে ২-০’তে এগিয়ে নেন ইতালিকে।   

তবে বিরতির আগে ফাউল করে বসে তারা। পেনাল্টি থেকে ব্যবধান কমানোর সুযোগ পায় রেড ডেভিলরা। বিরতিতে যাওয়ার আগে যোগ করা সময়ে পেনাল্টি থেকে রোমেলু লুকাকু গোল করেন। 

দ্বিতীয়ার্ধে ছিলো ইতালি বেলজিয়ামের সেয়ানে সেয়ানে লড়াই। ফুটবল রোমাঞ্চের সব উপাদানই যেন ছিল এই ম্যাচের পরতে পরতে। ম্যাচে ফিরতেই হবে এমনটাই শপথ করে মাঠে নেমেছিলো বেলজিয়ামের সেরা প্রজন্মের ফুটবলাররা। বিশেষ করে ডি ব্রুইনা আর লুকাকুর এই রসায়ন হলেই বেলজিয়াম ম্যাচ ফিরতে পারতো।  

কিন্তু, ফুটবল বিধাতা যেন মুখ ফিরিয়ে নেয়। অদম্য ইতালিয়ানদের প্রতিরোধ আর ভাঙতে পারেনি লুকাকু-কেভিন ডি ব্রুইনরা। তাই শেষ পর্যন্ত আর হয়নি। স্বপ্ন ভাঙে তাদের।  

বেলজিয়ামের সোনালি প্রজন্মের স্বপ্ন গুঁড়িয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে ৫৩ বছর শিরোপা খরায় ভোগা ইতালি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here