বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) থেকে ঢাকায় ফাইজার-বায়োনটেক উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। এদিন টিকা নিয়েছেন ৬৮৪ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ৪৩৬ জন এবং নারী ২৪৮ জন।
বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার অ্যান্ড কন্ট্রোল রুম সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। 

টিকা নেওয়া ৬৮৪ জনের মধ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ১৮০ জন, ৫০০ শয্যাবিশিষ্ট কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ১৩৮ জন, শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে ১৫০ জন, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১২০ জন, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৯৬ জন টিকা নেন। 

এছাড়া আরও দুটি হাসপাতাল (স্যার সলিমুল্লাহ মিটফোর্ড মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে) টিকাদানের জন্য নির্ধারিত থাকলেও এদিন টিকাদান শুরু হয়নি। 

প্রথম দফায় পরীক্ষামূলকসহ এ পর্যন্ত ফাইজারের মোট টিকা নিয়েছেন ৯২৪ জন।
করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে বিদেশগামী প্রবাসী কর্মীদের যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজার এবং চীনের সিনোফার্মের দুই টিকাই দেওয়া হবে। এ ক্ষেত্রে সৌদি আরব, কুয়েতসহ যেসব সিনোফার্মের টিকা নিয়ে জটিলতা রয়েছে, শুধু তাদেরই ফাইজারের টিকা দেওয়া হবে। আর বাকি সব প্রবাসীকে দেওয়া হবে সিনোফার্মের টিকা। 

উল্লেখ্য, ফাইজারের টিকা নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করতে হয়। তাই আপাতত ঢাকার বাইরে এ টিকা দেওয়া হচ্ছে না। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here