নকআউট পর্বের হাইভোল্টেজ ম্যাচে রাতে রোনালদোর পর্তুগালের মুখোমুখি হবে বেলজিয়াম। জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী রেড ডেভিলস কোচ রবার্তো মার্টিনেজ। এই ম্যাচে সেরাটা দিতে চায় পর্তুগিজরা। সেভিয়ায় ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়।

শতভাগ সাফল্য নিয়ে ‘বি’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলোতে জায়গা করে নেয় বেলজিয়াম। এবার কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে রেড ডেভিলসদের সামনে পর্তুগিজ বাধা। নকআউটের সেই বাধা টপকাতে প্রস্তুত রবার্তো মার্টিনেজের দল। সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স কিংবা কাগজে কলমের হিসেবে বলাই যায়, অন্য যেকোন সময়ের চেয়ে ডায়নামিক একটি দল বেলজিয়াম।

সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ১২ ম্যাচে অপরাজিত ফিফা র‌্যাকিংয়ের শীর্ষে থাকা বেলজিয়াম। ১০ জয়ের ধারাবাহিকতায়, আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে দ্য রেড ডেভিলস। যেখানে ১৯৮৯ সালে ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইয়ে, পর্তুগালের বিপক্ষে শেষ হাসির সুখস্মৃতিও অনুপ্রেরণা জোগাচ্ছে মার্টিনেজ শিষ্যদের।

বেলজিয়াম শিবিরে কোনো ইনজুরি নেই। বিগ ম্যাচ তাই কৌশলে কিছুটা পরিবর্তনের আভাস কোচের। ৩-৪-২-১ ফরমেশনে ছক কষেছেন মার্টিনেজ। যেখানে পর্তুগিজ রক্ষণ কাঁপাতে মুখিয়ে আছে অলটাইম সুযোগ সন্ধানী ফরোয়ার্ড রোমেলু লুকাকু। সেই সঙ্গে মধ্যমাঠের নির্ভরতার প্রতীক কেভিন ডি ব্রুইনের সঙ্গে জ্বলে উঠতে শতভাগ প্রস্তুত এডেন হ্যাজার্ড-থোরগানরা।

বেলজিয়ামের কোচ রবার্তো মার্টিনেজ বলেন, ‘দলের ফুটবলাররা দারুণ ছন্দে রয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ তাই আমাদের দলগত পারফরম্যান্স করতে হবে। জয়ের ব্যাপারে আমরা আত্মবিশ্বাসী। ২০১৬ তে প্যারিসে ফ্রান্সকে হারিয়ে ইউরো শিরোপা জিতে নেয় পর্তুগাল, তাই বুঝতে হবে যে কোনো পরিস্থিতি তারা জ্বলে উঠতে পারে।’

অন্যদিকে মৃত্যুকূপ থেকে অনেকটাই কঠিন পথ পাড়ি দিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই,, নকআউটে বেলজিয়ামের সামনে পর্তুগাল। আসরে এখন অবধি সর্বোচ্চ পাঁচ গোল করে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তাইতো হাইভোল্টেজ এ ম্যাচে সবার নজর থাকবে সিআরসেভেনের দিকেই।

যদিও রোনালদো ছাড়া দলের বাকি ফুটবলারদের পারফরম্যান্স নিয়ে কিছুটা চিন্তিত থাকলেও, এ ম্যাচে পর্তুগিজ কোচে ফার্নান্দো সান্তোসের ফরেমশনটা থাকছে ৪-৩-৩। তারপরও শুরুর একাদশে থাকার সম্ভাবনা রয়েছে রুবেন দিয়াস-মৌতিনহো-সানচেস-দিয়াগো জোতার।

পর্তুগালের মিডফিল্ডার জোয়াও মৌতিনহো জানান, ‘বেলজিয়াম ভালো দল । তাদের সমীহ করছি। মাঠে সেরাটা দিতে আমরা শতভাগ প্রস্তুত। তারপরও যত দ্রুত সম্ভব প্রথমে গোল করে লিড নিতে চাই আমরা।’

পরিসংখ্যান বলছে , দু’দলের ১৮বারের মুখোমুখি লড়াইয়ে বেলজিয়ামের ৬ জয়ের বিপরীতে পর্তুগালের জয় ৫টি। তারপরও এই ম্যাচে রোনালদো-লুকাকুর দ্বৈরথ দেখতে অপেক্ষার প্রহর গুনছে অগণিত ফুটবল ভক্ত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here