মুকল রায় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পর থেকে পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতিতে শুরু হয়েছে নানারকম আলোচনা। ২০১৭ সালের পর মুকুল রায় তৃণমূল ভাঙার খেলায় মাস্টারমাইন্ড হওয়া সত্ত্বেও তৃণমূলে ফিরে আসা নিয়ে উঠছে নানা প্রশ্ন।
ভারতীয় জনতা পার্টির সর্বভারতীয় সহসভাপতি ছিলেন মুকুল রায়। ২০১১ সালে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পেছনে নন্দীগ্রাম-সিঙ্গুর আন্দোলন অক্সিজেন জোগালেও, দলীয় স্তরের রাজনীতিতে ঝামেলা পাকিয়েছিলেন মুকুল রায়। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে মুকুল রায়কে তাই রাজনীতির চাণক্য হিসেবেও মনে করা হয়। সেই মুকুল রায় প্রায় পৌনে চার বছর বিজেপির সঙ্গে ঘর করে, আবার ফিরলেন তার নিজের ঘর তৃণমূলে। কিন্তু কেন মুকুল রায় ফের তৃণমূলে? আর কেনইবা তিনি বিজেপি ছাড়লেন? 

মনে করা হয়, মুকুলের সামনে নারদা-সারদার আইনি কাঁটা ছিল। ফলে কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপির সঙ্গে পেরে উঠতে পারেননি তিনি। যোগ দিতে হয়েছে সেই দলে। যদিও বিজেপি এখন বলছে, সহসভাপতির পদ দিয়ে পুরস্কৃত করা হলেও দলে তার তেমন কোনও ভূমিকেই ছিল না। 

এবারের ভোটে বিজেপির হয়ে বাংলায় মুখ থুবড়ে পড়া মুকুল রায়, আবার তৃণমূলে ফিরে সেই প্রতিশোধ নেবেন বলেই মনে করছেন অনেকে। যদিও এ বিষয় নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। 

২০১৭ সালের পর থেকে তৃণমূল ছেড়ে মুকুলের হাত ধরে যেসব শীর্ষ নেতা বিজেপিতে ভিড়েছিলেন, তাদের মধ্যে কতজন আবার মুকুলের হাত ধরেই মমতা শিবিরে ফিরবেন- এখন সেই প্রশ্নও উঠছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here