এই হত্যাকাণ্ডকে সন্ত্রাসী হামলা বলে আখ্যায়িত করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। অনলাইনে ঘৃণাপ্রচার ও উগ্রবাদী গোষ্ঠীগুলোকে দমনের অঙ্গীকার করেন তিনি।

গাড়িচাপা দিয়ে হত্যা করা একটি কানাডীয় মুসলিম পরিবারের সমর্থনে কয়েক হাজার মানুষের পদযাত্রা হয়েছে। শুক্রবার (১১ জুন) লন্ডন ও ওন্টারিও-তে সাত কিলোমিটার পদযাত্রা হয়েছে।
গত রোববার (৬ জুন) মুসলিমবিদ্বেষ থেকে নাথানিয়েল ভেল্টমান নামের ২০ বছর বয়সী এক পিকআপ চালক ওই পরিবারের ওপর গাড়ি উঠিয়ে দিয়ে চারজনকে হত্যা করে। সন্ধ্যায় বাড়ির কাছেই হাঁটতে বের হয়েছিল ওই পরিবারটি।-খবর রয়টার্সের
পদযাত্রায় অংশ নেওয়া লোকজনের হাতের প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, ‘এখানে ঘৃণার কোনো জায়গা নেই,’ ‘ঘৃণার উপর ভালোবাসার জয় হবে’।
১৯ বছর বয়সী কলেজ শিক্ষার্থী আবদুল্লাহ আল-জারাদ বলেন, ‘এখানে সংখ্যা সবচেয়ে বড় কথা না…কিন্তু লন্ডনের প্রতিটি একক পরিবার থেকে মানুষের বৈচিত্র্য বেরিয়ে এসেছে। আজ একই কারণে সবাই এক জায়গায় জড়ো হয়েছি।’
এই মর্মান্তিক ঘটনার স্মরণে এক মিনিট নীরবতার পর বিভিন্ন ধর্মের প্রতিনিধিরা বক্তব্য দেন। ঘৃণাবাদের নিন্দা জানিয়ে লন্ডনের তিন লাখ মুসলিম কমিউনিটিকে ব্যাপক সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়েছে।
এছাড়াও টরোন্টো, অটোয়া, মনট্রিল ও কুইবেকে পদযাত্রা ও প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববারের ওই হামলার নিন্দা জানিয়েছেন কানাডার সব স্তরের রাজনীতিবিদেরা। ঘৃণাপ্রসূত অপরাধ ও ইসলামবিদ্বেষ বন্ধে পদক্ষেপ নিতে তারা আহ্বান জানিয়েছেন। 

এই হত্যাকাণ্ডকে সন্ত্রাসী হামলা বলে আখ্যায়িত করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। অনলাইনে ঘৃণাপ্রচার ও উগ্রবাদী গোষ্ঠীগুলোকে দমনের অঙ্গীকার করেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here