করোনা আক্রান্ত স্পেন ফুটবল দলের অধিনায়ক সার্জিও বুসকেটস। তারপরও নিজেদের শিরোপার অন্যতম দাবিদার মানছেন কোচ লুই এনরিকে। এদিকে, ইংল্যান্ডের দুর্বল দিক ছাড়াই আসরের ফেভারিট বলছেন অ্যান্তে রেবিচ। ফ্রান্স জাতীয় দলের ফুটবলারদের সাথে দেখা করেছেন প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো।
২৪টি দল একটি ট্রফি। ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের মহারণ শুরুর অপেক্ষা হাতেগোনা অল্প কয়েক ঘণ্টার কথা। কারা থাকছে এগিয়ে, কার হাতে উঠবে ট্রফি। নানা জলপনা কল্পনা কষছেন ভক্ত সমর্থকরা। শেষ মূহূর্তের প্রস্তুতি নিয়ে কে কি বলছেন? 

ইউরোর মঞ্চে নামার আগে মনে হয় সবচেয়ে অস্বস্তিতে আছে স্পেন। কারণটা স্পষ্ট। করোনার আঘাতে টালমাটাল দল। অধিনায়ক বুস্কেটস পজিটিভ হওয়ার পর আইসোলেশনে গোটা দল। গত লিথুনিয়ার বিপক্ষের প্রীতি ম্যাচটি খেলেছে অনূর্ধ্ব-২১ দল। এমন পরিস্থিতিতে কোচ লুই এনরিকে আছেন কিছুটা চিন্তায়। তবে দল নিয়ে আশাবাদী অভিজ্ঞ কোচ। শিরোপা জয়ের ব্যাপারে এখনো ফেভারিট বলছেন স্পেনকে। 

এনরিকে বলেন, দেখুন রোববারের পর থেকে ক্যাম্পের পরিস্থিতি পরিবর্তন হয়ে গেছে। যখন পজিটিভ কেইস ধরা পড়ে। আমরা অবাকই হয়েছি। কারণ হোটেলে বায়োবাবলের সব ধরনের নিয়ম মেনে চলছি। নিয়ম মেনে পিসিআর টেস্ট করানো হয়েছে। তারপরও পজিটিভ হয়েছেন। আমরা করোনার সব নিয়মকানুন সম্মান করি এবং মেনে চলছি। আমার মনে হয় ইউরো চলাকালীন আরো কঠোর নিয়মকানুন মানা হবে। তবে যত কিছুই হোক আমরা শিরোপার অন্যতম দাবিদার। সামনে আমাদের পর্তুগালের বিপক্ষে ম্যাচ আছে। আমি দল নিয়ে অনুপ্রাণিত। 

এবারের ইউরোতে আরেক ফেভারিট ক্রোয়েশিয়া। লড়াই শুরুর আগে নিজেদের ঝালিয়ে নিচ্ছে শেষবারের মতো। গত বিশ্বকাপে জ্লতকো দালিচের অধীনে নিজেদের সক্ষমতা দেখিয়েছে দল। বিশ্বকাপের রানার্স আপ দলটা নিশ্চয়ই এ আসরে প্রত্যাশায় থাকবে একটা ট্রফি জয়ের।
এদিক, অনুশীলনের পর অবশ্য কথা বলেছেন গণমাধ্যমে। প্রশ্নের জবাবে জানান এই বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট নাকি ইংল্যান্ড। 

তিনি আরো বলেন, আমার মনে হয় এবারের ইউরোতে অন্যতম ফেভারিট ইংল্যান্ড। যাদের কোনো দুর্বল দিক নেই। তাদের সেন্টার ব্যাক ফিকায়ো তোমোরি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল খেলেছে। তাকে না রাখায় আমি অবাক হয়েছি। তবে আমরা আশাবাদী ভালো কিছুর ব্যাপারে। ইংল্যান্ডের বিপক্ষের ম্যাচটা কঠিন হবে। আরো দুটি ম্যাচ রয়েছে গ্রুপ পর্বে। এখন আমাদের লক্ষ্য গ্রুপ পর্ব পাড়ি দেওয়া। 

এদিকে, বিশ্বকাপের মঞ্চে নামার আগে দলকে উৎসাহ দিতে জাতীয় দলের সাথে দেখা করেছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো। এসময় এমবাপ্পে, গ্রিজম্যান, বেঞ্জেমাদের সাথে সময় কাটান ম্যাক্রো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here