পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশে দুটি যাত্রীবাহী ট্রেনের সংঘর্ষে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০ জনে দাঁড়িয়েছে। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৬৪ জন। এখনও অনেকেই আটকা আছেন বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় শোক জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

স্থানীয় সময় সোমবার (০৭ জুন) সকালে সিন্ধ প্রদেশের ঘোটকি জেলার দারকি শহরে দুটি ট্রেনের ভয়াবহ সংঘর্ষ হয়। করাচি থেকে সারগোদা যাওয়ার পথে লাইনচ্যুত হওয়া মিল্লাত এক্সপ্রেসকে পাঞ্জাব থেকে করাচিগামী স্যার সৈয়দ এক্সপ্রেস ধাক্কা দেয়। এতে অন্তত ১৪টি বগি লাইন থেকে ছিটকে পড়ে। এর মধ্যে ৮টি বগি একেবারে দুমড়ে-মুচড়ে যায়।

ঘটনাস্থলেই বেশ কয়েকজন মারা যায়। এর মধ্যে সাধারণ যাত্রীদের পাশাপাশি রেলকর্মীও রয়েছে। দুর্ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আটকে পড়াদের উদ্ধারে তৎপরতা শুরু করে কর্তৃপক্ষ। তবে দিনের আলো না ফোটায় উদ্ধারকাজে বেশ বেগ পেতে হয় বলে জানান উদ্ধারকর্মীরা।

মিল্লাত এক্সপ্রেসের ধ্বংসস্তূপের মধ্যে অনেকে আটকা পড়েন। তাদের উদ্ধারে সাহায্যবাহী বিশেষ ট্রেন ও ভারী যন্ত্রপাতি মোতায়েন করা হয়। দুর্ঘটনার পরপরই স্থানীয় হাসপাতালগুলোতে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়।

দুর্ঘটনায় হতাহতদের স্বজনদের প্রতি শোক জানিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। আহতদের সুচিকিৎসা নিশ্চিতে রেলমন্ত্রীকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে, দুর্ঘটনার প্রকৃত কারণ খতিয়ে দেখারও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

সূত্রঃ ডন/রয়টার্স

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here