করোনা পরিস্থিতির কারণে একাডেমিক লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা অনলাইনে নেওয়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) সিন্ডিকেট।

বুধবার (২ জুন) বেলা ১১টায় অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভা শেষে সিন্ডিকেটের সদস্য সচিব ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, গত ২৮ মে অনুষ্ঠিত একাডেমিক কাউন্সিলের বৈঠক থেকে অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার যে সুপারিশ সিন্ডিকেটে পাঠানো হয়। তা আজ সিন্ডিকেট অনুমোদন করেছে।

এই বিষয়ে সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক রাশেদা আখতার সাংবাদিকদের বলেন, একাডেমিক কাউন্সিলের প্রস্তাবটি সিন্ডিকেট অনুমোদন করেছে। পরীক্ষার আগে কিছু প্রস্তুতির ব্যাপার আছে। আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে আমাদের পরীক্ষা শুরু করার পরিকল্পনা আছে। এর মধ্যে অনলাইনে পরীক্ষার বিষয়ে শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতি সম্পন্ন হবে। অনলাইনে পরীক্ষা গ্রহণের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের প্রতি শিক্ষকদের সহানুভূতিশীল হতে হবে।

একাডেমিক কাউন্সিল থেকে পাঠানো সিদ্ধান্তের সুপারিশগুলো হলো- পরীক্ষা তিনটি ধাপে নেওয়া হবে। ধাপগুলো হলো- অ্যাসাইনমেন্ট, ওপেন বুক এক্সাম এবং ভাইভা।

অনলাইন পরীক্ষায় অ্যাসাইনমেন্টে ১০ নম্বর, একটি নির্দিষ্ট সময় সীমাবদ্ধ অনলাইন এক্সামে ১০ নম্বর এবং ভাইভাতে ৩০ নম্বর রাখা হয়েছে। এই ৫০ নম্বরকে আবার ৭০ নম্বরে রূপান্তর করা হবে। পাশাপাশি ক্লাস টিউটোরিয়াল পরীক্ষার ২০ নম্বর এবং ক্লাসে উপস্থিতির উপর ১০ নম্বর। এই ১০০ নম্বরে পরীক্ষা নেওয়া হবে।

সশরীরে সম্পন্ন ক্লাসগুলো যদি ৫০ শতাংশের বেশি হয়ে থাকে তবে সেই ৫০ শতাংশকে ধরে মার্কস গণনা করা হবে। তবে অনলাইন ক্লাস সমূহের ক্ষেত্রে মার্কস গণনা করা হবে না। অনলাইনে ৫০ শতাংশের বেশি ক্লাস হলে সেক্ষেত্রে অ্যাসাইনমেন্ট বা অন্য কোনোভাবে এই ১০ মার্কস পূরণ করতে হবে।

সার্জিল/

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here