চট্টগ্রামে নতুন করে আরো ৪ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডিতে গতকাল রোববার ১১৩টি নমুনা পরীক্ষায় এই ৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি আজাদীকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তবে গতকাল বিআইটিআইডির ল্যাবে লক্ষ্মীপুরের ৪ জন ও নোয়াখালীর ১ জনসহ আরো ৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। তাছাড়া চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে এর আগে সংক্রমণ ধরা পড়া এক রোগীর নমুনা পরীক্ষার ফলাফল ফের পজিটিভ এসেছে। সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়- রোববার চট্টগ্রামে নতুন শনাক্ত ৪ জনের তিনজন মহানগরীর। আর ১ জন সাতকানিয়া উপজেলার বাসিন্দা।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মহানগরীতে শনাক্ত ৩ জনের মধ্যে উত্তর কাট্টলি মেরিডিয়ান কোম্পানির বাড়ির একই পরিবারের দুই ভাই-বোন রয়েছেন। বোনের বয়স ২৭। আর ভাইয়ের ২৫ বছর। এর আগে তাদের ৫৭ বছর বয়সী বাবার শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। তিনি টুকটাক চাষাবাদের কাজ করতেন। অসুস্থতার পর গত ১২ এপ্রিল থেকে বিআইটিআইডি হাসপাতালের আইসোলেশনে আছেন তিনি। নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে ১৩ এপ্রিল ওই ব্যক্তির শরীরে করোনা সংক্রমণের বিষয়টি জানা যায়। বাবার পর গতকাল ছেলে-মেয়েসহ এ নিয়ে পরিবারটির তিনজনের শরীরে করোনা শনাক্ত হলো।
অন্যদিকে, আরেকজন দামপাড়া পুলিশ লাইনের ৪৩ বছর বয়সী পুলিশ সদস্য। পুলিশ সদস্যদের মাঝে প্রথম একজনের করোনা শনাক্তের পর যারা কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন, তাদের মধ্য থেকেই এই পুলিশ সদস্যের করোনা শনাক্ত হলো গতকাল। এর আগে আরো ২ জনসহ এ নিয়ে মোট ৪ জন পুলিশ সদস্যের করোনা শনাক্ত হলো। এদিকে, নতুন করে করোনা শনাক্ত হওয়া রোগীদের নির্ধারিত দুটি হাসপাতালের আইসোলেশনে নেয়ার কথা জানান সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি। তবে আক্রান্তদের বাসা-বাড়ি এবং ব্যারাক আগে থেকেই লকডডাউন থাকায় নতুন করে লকডাউনের প্রয়োজন পড়ছে না বলেও জানান সিভিল সার্জন। এদিকে, গতকালের নতুন ৪ জনসহ এ নিয়ে চট্টগ্রাম জেলায় করোনা আক্রান্ত শনাক্তের মোট সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৯ জনে। আর করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ৫ জন। রোববার রাত পর্যন্ত ৩৫ জন আইসোলেশনে ভর্তি ছিলেন বলে জানান সিভিল সার্জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here